রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০১:৩৩ পূর্বাহ্ন

অন্তঃসত্ত্বা নারীর পেটে লাথি মারা আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ মে, ২০২৩

গাজীপুরের শ্রীপুরে অন্তঃসত্ত্বা নারীর পেটে লাথি মারার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ নেতা কামাল উদ্দিন ফরাজির বিরুদ্ধে। লাথির আঘাতে অন্তঃসত্ত্বা ওই নারী মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এদিকে আঘাতের কারণে অনাগত সন্তান নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী নারীর স্বজনেরা।

গত ২ এপ্রিল উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়নের নালিয়াটেকী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় ওই আওয়ামী লীগ নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

রোববার (০৭ মে) বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ ফরিদ। তিনি বলেন, বিষয়টি নজরে আসার সঙ্গে সঙ্গে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় তাঁকে সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বহিষ্কার হওয়া আওয়ামী লীগ নেতা কামাল উদ্দিন ফরাজি উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়নের নালিয়াটেকী গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিন ফরাজির ছেলে। তিনি শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। অন্যদিকে, নির্যাতনের শিকার অন্তঃসত্ত্বা নারী নাসরিন আক্তার উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়নের নালিয়াটেকী গ্রামের আল আমিনের স্ত্রী।

ভুক্তভোগী নারীর স্বামী আল আমিন বলেন, ঘটনার দিক সকাল ৮টার দিকে আওয়ামী লীগ নেতা কামাল উদ্দিন ফরাজি আমার কেনা জমির ওপর দিয়ে জোর করে রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু করে। এ নিয়ে তাঁর সঙ্গে আমার শ্যালক কাওসারের বাগ্বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে শ্যালককে মারধর করেন তিনি। এ সময় আমার স্ত্রী নাসরিন ভাইকে রক্ষা করতে এগিয়ে যায়। এ সময় কামাল উদ্দিন আমার স্ত্রীর পেটে জোরে লাথি মারে মাটিতে ফেলে দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

আল আমিন আরও বলেন, কয়েক দিন ধরে আমার স্ত্রীর রক্ত ক্ষরণ হচ্ছে, পানি যাচ্ছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন অবস্থার উন্নতি না হলে বাচ্চা নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা আছে। একদিকে স্ত্রীকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছি, অপরদিকে কামাল উদ্দিন ও তার লোকজন থানা থেকে অভিযোগ তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছেন। এর আগেও তিনি আমার জমির ওপর দিয়ে হেঁটে চলাচলের রাস্তা নিয়েছেন।

মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা কামাল উদ্দিন ফরাজি বলেন, আমি তাঁকে (ভুক্তভোগী নারী) লাথি মারিনি। সামান্য শাসন করা হয়েছে। এই ছোট্ট বিষয়টিকে বড় করে আমার বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র করছে একটি পক্ষ।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম বলেন, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD