বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:২১ পূর্বাহ্ন

উত্তপ্ত হয়ে সংবাদ সম্মেলন ছাড়লেন ট্রাম্প

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১২ মে, ২০২০

করোনাভাইরাস নিয়ে প্রশ্নের জেরে এক সাংবাদিকের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ে জড়িয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে আরও এক সাংবাদিকের সঙ্গে বাদানুবাদের পর আকস্মিকভাবে সোমবারের ওই সংবাদ সম্মেলনস্থল ছেড়ে উঠে যান তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে ট্রাম্পের এমন কাণ্ডের ভিডিও।

সোমবার হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে প্রায় ঘণ্টাখানেক সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। প্রথমেই ট্রাম্প তার প্রশাসন করোনা পরীক্ষার জন্য কত ডলার দিয়েছে সেই তথ্য তুলে ধরেন। তবে এটি জানাতে গিয়ে তিনি ১১ বিলিয়নের জায়গায় ভুল করে ১ বিলিয়নের কথা উল্লেখ করেন।

সব কিছু ঠিকঠাকই চলছিল। তবে বিপত্তি বাদে চীনা বংশোদ্ভূত সিবিএস নিউজ-এর হোয়াইট হাউস প্রতিনিধি ওয়েজিয়া জিয়াং-এর প্রশ্নের জেরে। তিনি বলেন, ‘আপনি বহুবার বলেছেন অন্যান্য দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্র করোনা পরীক্ষায় ভালো করছে।’ সঙ্গে সঙ্গে ট্রাম্প বলেন, ‘হ্যাঁ।’ তখন ওয়েজিয়া জিয়াং বলেন, ‘যেখানে ৮০

হাজারেরও বেশি মার্কিন নাগরিক মারা গেছে, সেখানে তিনি কেন করোনা পরীক্ষাকে একটি বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা হিসাবে দেখছেন?’ উত্তরে ট্রাম্প বলেন, ‘সম্ভবত এই প্রশ্নটি আপনার চীনকে করা উচিত। আমাকে নয়। ঠিক আছে?’

এরপর ট্রাম্প প্রশ্নের জন্য পরবর্তী সংবাদিককে ডাকতে চাইলে ওয়েজিয়া জিয়াং বলেন, ‘স্যার এটা বিশেষ করে আমাকে কেন বলছেন?’ পাল্টা উত্তরে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি কাউকে নির্দিষ্ট করে বলছি না। এমন কাউকে বলছি যে, বাজে প্রশ্ন করে। আমি তোমাকে বলেছি।’

জবাবে ওয়েজিয়া জিয়াং প্রতিবাদ করে বলেন, ‘এটা কোনও বাজে প্রশ্ন নয়।’ তখন ট্রাম্প অন্যদের কাছ থেকে প্রশ্ন নিতে অন্যদিকে তাকান। জানতে চান আর কারও প্রশ্ন আছে কিনা? এ সময় তাকে বেশ ক্রুব্ধ দেখাচ্ছিল। এ পর্যায়ে মাইক্রোফোন নেন সিএনএন-এর সাংবাদিক কেইটলান কলিন্স। তিনি বলেন, ‘আমার দুইটি প্রশ্ন আছে।’ উত্তরে ট্রাম্প বলেন, ‘না। অন্য কেউ।’ এ নিয়ে আরেক দফা উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ে জড়ান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এর এক পর্যায়ে আর কাউকে না ডেকে সংবাদ সম্মেলনের ইতি টানেন তিনি। ‘লেডিস অ্যান্ড জেন্টলম্যান, থ্যাঙ্ক ইউ ভেরি মাচ’ বলে সম্মেলনস্থল থেকে বেরিয়ে যান ক্ষুব্ধ ট্রাম্প।

ট্রাম্পের এমন আচরণকে হতাশাজনক হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ভারমন্টের সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স। টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে তিনি বলেন, ট্রাম্প এমন এক কাপুরুষ, যে নিজেকে শক্তিশালী হিসেবে অনুভব করতে অন্যদের ডুবিয়ে দেয়।

লাইটনিউজ/এসআই

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD