রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:২৩ পূর্বাহ্ন

কারাতের কৃতিমান জুয়েল চলে গেলেন না ফেরার দেশে

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০

 

কারাতের রিংয়ে অনেক ম্যাচ জেতা হুমায়ুন কবির জুয়েল ‘জীবনের ম্যাচ’ হেরে গেলেন করোনাভাইরাসের কাছে। বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক কারাতে অঙ্গনের সদাহাস্য প্রিয়মুখ প্রতিভাবান এই কোচ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৬ মে, মঙ্গলবার সকালে (ইন্না লিল্লাহে.. রাজেউন)।

ঈদের দিন ২৫ মে, সোমবার করোনা উপসর্গ ও শ্বাসকষ্টজনিত শারীরিক সমস্যা নিয়ে হুমায়ুন কবির জুয়েল রাজধানীর গ্রীন হাসপাতালে ভর্তি হন। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়। মঙ্গলবার ভোররাত থেকেই তার শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হয়। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এই কৃতি ক্রীড়া সংগঠক এদিনই সকাল ৮টায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

ঢাকা কলেজের ’৮৬ ব্যাচের কৃতি ছাত্র হুমায়ুন কবির জুয়েল ছাত্রজীবন থেকেই কারাতের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন। ছাত্রজীবন শেষেও কারাতেই ছিল তার ধ্যান-জ্ঞান। জুয়েল ছিলেন এশিয়ান কারাতে ফেডারেশনের জাজ/রেফারি এবং বিশ্ব কারাতে ফেডারেশনের লাইসেন্সধারী কোচ। তিনি বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের বর্তমান কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য ছিলেন। বাংলাদেশ কারাতে রেফারি এসোসিয়েশনের কো-চেয়ারম্যানের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও পালন করছিলেন তিনি। দক্ষিণ এশিয়ান কারাতে রেফারি এসোসিয়েশনের ডেপুটি চেয়ারম্যানও ছিলেন কারাতের কৃতিমান এই প্রশিক্ষক ও জাজ।

৫২ বছর বয়সী জুয়েল মৃত্যুকালে মাতা, স্ত্রী ,এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তানসহ অসংখ্য বন্ধুবান্ধব ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

করোনাভাইরাস মহামারীর দুর্যোগে পড়া অসহায় মানুষের পাশে উদারহাত নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন হুমায়ুন কবির জুয়েল। বিভিন্ন এলাকায় বিপন্ন মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণের কাজে ব্যস্ত ছিলেন তিনি। আশঙ্কা করা হচ্ছে সেই সময় তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ২১ মে করোনাভাইরাস পরীক্ষায় জুয়েল নেগেটিভ প্রমাণিত হন। অথচ মাত্র ৫ দিনের মধ্যে সেই তিনিই মারা গেলেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। রাজধানীর উত্তর খানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কৃতিমান এই কারাতে প্রশিক্ষক, কোচ ও জাজের মৃত্যুতে বিভিন্ন সংগঠন শোক ও সমবেদনা জানিয়েছে। বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা এক শোকবার্তায় বলেন-‘হুমায়ুন কবির জুয়েলের মৃত্যুতে বাংলাদেশের কারাতে অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। তার স্থান কেউ পূরণ করতে পারবে না।’

ঢাকা কলেজের ছাত্রজীবন থেকে জুয়েলের বন্ধু বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন- ‘বন্ধু জুয়েল, পরপারে ভালো থাকিস।’

তুরস্কের কারাতে সংগঠক আরসুমেন্ট তাসদেমির তার শোকবাণীতে লেখেন- ‘আমি বাংলাদেশে আমার একজন উদারমনা বন্ধু এবং কারাতের প্রতিভাবান রেফারিকে হারালাম।’

ঢাকা কলেজ ’৮৬ ব্যাচে জুয়েলের বন্ধুরাও তার এই অকাল মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান।

লাইট নিউজ/আই

 

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD