বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৪:০৫ পূর্বাহ্ন

‘বাবা-মা চান ক্রিকেটার হয়ে সংসারের অভাব ঘুচাই’

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৬ জুন, ২০২২

ক্রিকেট তার ধ্যান-জ্ঞান। কিন্তু অগ্রজদের দাপটে মহল্লায় খেলার সুযোগ ছিল না। মাঠের বাইরে বল কুড়িয়ে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাতে চাইতেন। কিন্তু এভাবে কি আর ভাল লাগে? পাড়া-মহল্লায় সমবয়সীদের নিয়ে খেলার ইচ্ছা অপূর্ণ থাকে সঙ্গীর অভাবে।

মাঠে খেলার চেয়ে মোবাইলে বুদ হয়ে থাকাতেই বেশি আগ্রহ উঠতি বয়সীদের। নিরুপায় হয়ে সঙ্গী হিসেবে দেয়ালকে বেছে নিয়েছিলেন ইরান খন্দকার!
হাত ঘুরিয়ে দেয়ালে বোলিং করছেন। বল দেয়ালে লেগে ফিরে আসছে। আবার বোলিং করছেন। তার এ কাজ দেখে স্থানীয় এক ক্রিকেটারের মাঝে কৌতূহল জাগল। কাছে গিয়ে আবিষ্কার করলেন ইরান খন্দকারের মাঝে আদর্শ স্পিনারের অনেক গুনাগুণ বিদ্যমান। ওই ক্রিকেটারের কল্যাণেই বরিশাল স্টেডিয়ামে প্রথমবারের মতো খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন স্বপ্নবাজ এই কিশোর। স্বল্প সময়ে দৃষ্টি কাড়েন বেসিক ক্রিকেট কোচিং একাডেমি কোচদের। সেখান থেকে প্রাইম ব্যাংক জাতীয় স্কুল ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পান।

এবারের আসরে জেলা, বিভাগ ও ন্যাশনাল রাউন্ড মিলিয়ে ৫ ম্যাচ খেলেছেন ইরান খন্দকার। নিয়েছেন ১২ উইকেট। ইনিংসে ৫ উইকেট রয়েছে একটি। এ পরিসংখ্যান অবশ্য ইরান খন্দকারের প্রতিভা বোঝাতে যথেষ্ট নয়। বরিশাল আসমত আলী খান ইন্সটিটিউটকে ন্যাশনাল রাউন্ডে তুলে আনতে যাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে, ইরান খন্দকার তাদের একজন। বোলিংয়ের পাশাপাশি দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতেও ভূমিকা রেখেছেন নিয়মিত, ছিল চল্লিশোর্ধ একটি ইনিংস। প্রাইম ব্যাংক স্কুল প্রতিযোগিতা খেলার পর তরুণ প্রতিভার ক্রিকেট সংক্রান্ত স্বপ্নে নতুন ডালপালা মেলেছে।

ডানহাতি লেগ এ স্পিনারকে অবশ্য প্রতিনিয়ত ক্ষুধা ও দরিদ্রতার সঙ্গে লড়াই করতে হয়। আজ সোমবার নারায়ণগঞ্জ শামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে ইরান খন্দকার বলেন, ‘আমি নিজেকে ক্রিকেটে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। প্রতিনিধিত্ব করতে চাই জাতীয় দলে। বাবা-মা, দুই ভাই ও বোনকে নিয়ে অমাদের পরিবার। বাবা অসুস্থ, তিনি কাজ করতে পারেন না। সংসারের জোয়াল টানছেন মা। মায়ের চায়ের দোকান আমাদের পরিবারের আয়ের একমাত্র উৎস। ‘

ইরান খন্দকার আরও বলেন, ‘সাধারণভাবে খেয়ে-পড়ে বেঁচে থাকার জন্য পরিবারে আমার সহযোগিতা প্রয়োজন। কিন্তু মা-বাবা আমাকে পুরোপুরি ক্রিকেটে মনোযোগ দেয়ার কথা বলেন। আমিও মনোযোগ দিচ্ছি, চেষ্টা করছি। আমার স্বপ্ন ক্রিকেটার হওয়া। লাল-সবুজ বুকে ধারণ করে খেলা। বাবা-মা চান ক্রিকেটের মাধ্যমে আমি দরিদ্রতা দূর করে সংসারের হাল ধরি। ‘

বরিশালের কাউনিয়ার কিশোরকে নিয়ে আশাবাদী আসমত আলী খান ইন্সটিটিউটের কোচ সুজন, ‘প্রতিভাবান ক্রিকেটার ইরান। খেলাটা তার ধ্যান-জ্ঞান। প্রতিনিয়তই নিজের উন্নতির জন্য কঠোর পরিশ্রম করছে সে। ‘

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD