মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১০:২১ অপরাহ্ন

যেভাবে করোনা থেকে সুরক্ষা পাবেন!

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৮ মার্চ, ২০২০

নভেল করোনাভাইরাস এবং এই ভাইরাসের কারণে হওয়া রোগ COVID-19 নিয়ে উৎকন্ঠায় আছে সারা পৃথিবী। ইতোমধ্যে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা একে বিশ্বব্যাপি মহামারি বা Pandemic ঘোষণা করেছে। বিজ্ঞানীদের মতে, এই রোগ অত্যন্ত দ্রুত ছড়ায়। গণিতের ভাষায় বললে, ‘সূচকীয়’ হারে এই ভাইরাস ছড়ায়।

করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে সচেতনতার কোন বিকল্প নেই। তবে দুঃখজনক বিষয় হলো, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এমন কিছু তথ্য ছড়িয়ে পড়েছে তাতে মানুষ বিভ্রান্ত হয়ে পড়ছে। নির্ভরযোগ্য কোন সূত্র ছাড়াই একেকজন একেকভাবে এই রোগ সম্পর্কে ভুলভাল তথ্য দিয়েই যাচ্ছে। ফলে বিপদের সময় মানুষ আরও আতঙ্কিত হচ্ছে।

আসুন, করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত ভুল ধারণাগুলো জেনে নেই-

রসুন কতটা কার্যকর?

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ‘একদল’ ছড়িয়েছেন, রসুন খেলে করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই কথাকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছে। গবেষকরা বলছেন, সাধারণ ফ্লু এর জীবাণুনাশক হিসেবে রসুন কখনও কখনও ভালো ফল দিতে পারে। তবে করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রে রসুনের কোন কার্যকারিতা নেই। বরং রসুনই এরোগের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।

সাউথ চায়না মর্নিং পোষ্ট এর একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে এমন- এক নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর প্রায় ১.৫ কেজি কাঁচা রসুন খেয়েছিল। তারপর তার শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত খারাপ হয়ে যায় এবং তাকে সুস্থ করে তুলতে চিকিৎসকদের হিমশিম খেতে হয়েছিল।

হাত ধোয়া নিয়ে গুজব!

ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে, হ্যান্ডওয়াশ বা হ্যান্ড স্যানিটাইজারের চেয়ে হাত ধোয়ার জন্য অ্যালকোহল বেশি কার্যকর। এই কথাটি নিতান্তই গুজব বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেন, অ্যালকোহল ত্বকের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। বিশেষ করে শিশুদের ত্বকের জন্য এটা ভয়ঙ্কর। ফলে অ্যালকোহল নয়, হ্যান্ডওয়াশ বা সাবান দিয়ে দিনে কয়েকবার হাত ধুতে হবে। প্রতিবার অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে হাত পরিষ্কার করতে হবে। ব্যাগে রাখতে পারেন হেক্সিসল। প্রয়োজনমতো হাত পরিষ্কার করে নিতে পারেন।

ঘনঘন পানি খেতে হবে?

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আরেকটি ভুল ধারণা হলো, করোনা আক্রান্ত রোগীকে ১৫ মিনিট পর পর গরম পানি খেতে হবে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিশেষজ্ঞ বলেছেন, ঘন ঘন পানি খাওয়ার সঙ্গে এই রোগ সেরে যাওয়ার কোন সম্পর্ক নেই।

গরমের দেশ শঙ্কামুক্ত?

ফেসবুকে কিছু পোস্টে বলা হচ্ছে, গরমের দেশে করোনাভাইরাস ছড়ায় না। এমন তথ্য অত্যন্ত বিপদজ্জনক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওয়েবপেজ ‘Myth Busters’ এ প্রথমেই বলা আছে, COVID-19 virus can be transmitted in areas with hot and humid climates. গবেষকদের পাওয়া এখন পর্যন্ত সব তথ্য বলছে, গরম ও আর্দ্র এলাকাতেও কোভিড-১৯ ছড়াতে পারে।

গরমের দেশে যদি এই ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার ভয় না থাকত তাহলে সৌদি আরব, মিশর, ভারত ও ইরাকে এত মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হত না। সুতরাং এই কথাটি নিতান্তই বিভ্রান্তিমূলক।

শিশুরা আক্রান্ত হয় না?

অনেকে বলছেন, করোনাভাইরাসে শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম। এর প্রেক্ষিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, সব বয়সের মানুষই এই রোগে আক্রান্ত হতে পারে। সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। অবহেলা করার কোন মানে নেই।

সবাইকে মাস্ক পরতে হবে?

এদেশে মাস্কের আকাল পড়েছে। ব্যবসায়ীরা চড়া দামে বিক্রি করছে মাস্ক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছে, বিনা কারণে মাস্ক পরার দরকার নেই। হাঁচি-কাশিতে আক্রান্ত ব্যক্তির মাস্ক পরতে হবে। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত বা সন্দেহজনক কোন রোগী দেখাশোনা করার সময় মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতনতা বাড়াতে হবে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভুল তথ্য বিশ্বাস করা যাবে না।

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD