বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

ইমরান খানের পতন ঘটাতে চায় সৌদি আরব

পাকিস্তান ও সৌদি আরবের মধ্যে সম্পর্কের টানাপড়েনের মধ্যে ইসলামাবাদে সরকার পরিবর্তনের চেষ্টা করছে রিয়াদ। স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে আল আরাবি জানিয়েছে, ইমরান খানের বিকল্প হিসেবে সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরিফকে ক্ষমতায় বসাতে চাচ্ছে সৌদি আরব।

পাকিস্তান ও ভারতের গণমাধ্যম দাবি করেছে, সৌদি নেতৃত্বাধীন ইসলামিক মিলিটারি অ্যালায়েন্স টু ফাইট টেরোরিজম (আইএমএএফটি)-র একজন কমান্ডার জেনারেল শরিফ রিয়াদের পছন্দের প্রার্থী।

ঐতিহ্যগতভাবে রিয়াদ ও ইসলামাবাদের মধ্যে গভীর সম্পর্ক ছিল। কিন্তু কাশ্মীর সংকট নিয়ে উভয় দেশের মধ্যে সাম্প্রতিক সময়ে সম্পর্ক তিক্ত হয়ে ওঠে। পাকিস্তানের অভিযোগ, কাশ্মীর ইস্যুতে নীরবতা পালন করছে সৌদি আরব।

গত বছরের আগস্ট থেকেই এই ইস্যুতে সৌদির সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করছে পাকিস্তান। এমনকি সৌদি নেতৃত্বাধীন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি) যাতে এই ইস্যুতে পদক্ষেপ নেয় তার চেষ্টাও চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। এছাড়া কাশ্মীর ইস্যুতে ওআইসি সদস্যভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের একটি বৈঠকেরও আহ্বান জানিয়েছে ইসলামাবাদ।

এদিকে সৌদির বাইরে গিয়ে পাকিস্তান পদক্ষেপ নিতে পারে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশির এমন হুঁশিয়ারির পর সম্পর্ক একেবারে তলানিতে গিয়ে ঠেকে।

ওই ঘটনার পর হঠাৎ করেই পাকিস্তানের সঙ্গে ৬.২ বিলিয়ন ডলার ঋণ ও তেল সরবরাহ চুক্তি বাতিল করে সৌদি আরব। পরে রিয়াদকে শান্ত করতে গত ১৭ আগস্ট রিয়াদ সফর করেন পাকিস্তানের চিফ অব আর্মি স্টাফ লে. জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া। যদিও পাকিস্তান জানায় এটি রুটিন সফর। তবে ওই বৈঠকের কয়েকদিন পর কাশ্মীর ইস্যুতে ওআইসি’র ভূমিকা প্রশংসা করে বিবৃতি দেয় পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

লাইটনিউজ