বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

বাবার ব্রেইন ক্যানসার, বিনিদ্র রাত কেটেছে বেন স্টোকসের

স্পোর্টস ডেস্ক : পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলেই নিউজিল্যান্ডে পাড়ি জমান বেন স্টোকস। মিস করেন সিরিজের শেষ দুটি ম্যাচ। যাবার আগে শুধু এতটুকু জানিয়ে ছিলেন, পারিবারিক কারণে যাচ্ছেন নিউজিল্যান্ডে।

বিস্তারিত কিছু না জানিয়েই চলে যান। যাবার আগে বেন স্টোকস কেবল বলে যান, গণমাধ্যম যেন পারিবারিক গোপনীয়তার ব্যাপারে সম্মান প্রদর্শন করে।

এবার জানা গেল তার ম্যাচ মিস করার আসল কারণটা। বেন স্টোকসের বাবার মস্তিষ্কে বাসা বেঁধেছে মরণব্যাধী ক্যানসার। খবরটা জানিয়েছেন তারকা ইংলিশ অলরাউন্ডারের বাবা জেড স্টোকস নিজেই।

৬৪ বছরের জেড স্টোকস জানান, মস্তিষ্কে ক্যানসার ধরা পড়েছে জানুয়ারিতে। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ক্রাইস্টচার্চে ফেরার পর। ছেলের খেলা দেখতে গিয়ে আফ্রিকার দেশটি সফরে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে ছিলেন। গুরুতর অসুস্থ সাবেক রাগবি খেলোয়াড় ও কোচ জেড জোহানেসবার্গের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নেন টানা পাঁচ সপ্তাহ। তখন তার পাশেই ছিলেন তনয় বেন।

সিনিয়র স্টোকস নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডকে জানান, তার মস্তিষ্কে কয়েকটি টিউমার রয়েছে। এটা মূলত ব্রেইন ক্যানসার।

বাবার এমন অসুখের কথা শুনে কোন ছেলেরই বা ঘুম ধরতে পারে। বিনিদ্র রজনী পার করার কথা স্বীকার করলেন ২৯ বছরের জুনিয়র স্টোকস, ‘এক সপ্তাহ আমি ঘুমাতে পারিনি। আমার মাথাটা সত্যি কাজ করছিল না। মানসিক দিক থেকে দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত সঠিকই ছিল।’

অসুস্থ বাবার পাশে থাকতে ক্রিকেটের যাবতীয় ব্যস্ততা ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে নিউজিল্যান্ডে ফিরেন বেন স্টোকস। জন্মভূমিতে ফিরলেও মা-বাবার সঙ্গে এখনো দেখা হয়নি তার। নিয়ম মেনে ১৪ দিনের আইসোলেশন শেষে যাবেন পরিবারের মাঝে।

লাইট নিউজ