বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

পুঁজিবাজারকে পূর্ণাঙ্গ অটোমেটেড করতে চায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : দুই দশক ধরে, দেশের পুঁজিবাজারে চলছে, ডিজিটাল প্লাটফর্মের মাধ্যমে লেনদেন। কিন্তু এতদিনেও গড়ে ওঠেনি, পূর্ণাঙ্গ অটোমেটেড সিস্টেম। কারসাজি বন্ধ আর গতি ফেরাতে পুঁজিবাজারকে পূর্ণাঙ্গ অটোমেটেড করতে চায়, নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এশিয়ান টাইগার ক্যাপিটাল বলছে, পুরোপুরি অটোমেটেড পুঁজিবাজার গড়ে তোলা গেলে আগামী পাঁচ বছরে ৫০ লাখ নতুন বিনিয়োগকারীকে অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হবে।

করোনাকালে, পুঁজিবাজারকে পূর্ণাঙ্গ অটোমেশনের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছে, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন-বিএসইসি। বিনিয়োগকারীরা বলছেন, এতে গতি আসবে, বাজারে। বন্ধ হবে কারসাজি।

অনলাইন ট্রেডিং ও প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বাড়াতে ইতোমধ্যেই ওয়ার্কিং কমিটি করেছে, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ-ডিএসই। নতুন প্রজন্মের বিনিয়োগকারীদের পুঁজিবাজারে সম্পৃক্ত করতে জোর দিচ্ছে, সংস্থাটি।

তবে এ এক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জও কম নয়। এ জন্যে সবার আগে স্টক এক্সচেঞ্জকে আপগ্রেড করা প্রয়োজন। পাশাপাশি প্রযুক্তির সেবা নিশ্চিত করতে আইনী কাঠামো সংস্কারের তাগিদ দিচ্ছেন বিশ্লেষকরা।

পুঁজিবাজারে ২০ লাখের বেশি বিও হিসাব রয়েছে। এর মধ্যে মোবাইল অ্যাপ ও এর ডেস্কটপ ভার্সন ব্যবহার করছে, ৫৩ হাজার বিনিয়োগকারী।

লাইটনিউজ