বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

পরমাণু অস্ত্র দ্বিগুণের পরিকল্পনা করছে চীন: পেন্টাগন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আগামী এক দশকের মধ্যে চীন তার পরমাণু অস্ত্র দ্বিগুণ করবে বলে দাবি করেছে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগন। চীনের সামরিক শক্তি সম্পর্কে প্রকাশিত বার্ষিক এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে তারা।

সেখানে বলা হয়েছে, চীন তার পরমাণু অস্ত্র আধুনিকায়ন করছে এবং বাড়াচ্ছে। সেক্ষেত্রে আগামী এক দশকের মধ্যে চীনের পরমাণু অস্ত্রের সংখ্যা বর্তমান সংখ্যার চেয়ে অন্তত দ্বিগুণ হবে।

পেন্টাগনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনের কাছে বর্তমানে ২০০’র কিছু কম পরমাণু অস্ত্র রয়েছে। যদিও ফেডারেশ অব আমেরিকান সায়েন্টিস্টস জানিয়েছে, চীনের কাছে প্রায় ৩২০টি পরমাণু ওয়ারহেড রয়েছে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সংখ্যা অনেক বেশি বাড়াবে চীন সরকার। এটা যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি হয়ে দেখা দেবে বলেও জানিয়েছে তারা। এমনকি এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরমাণু ওয়ারহেড বহনে সক্ষম বলেও দাবি করছে পেন্টাগন।

এদিকে চীন ইতোইমধ্যে জাহাজ নির্মাণ, স্থলকেন্দ্রিক কনভেনশনাল ব্যালিস্টিক এবং ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ও সমন্বিত বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাসহ সামরিক সরঞ্জামাদি আধুনিকায়নের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সমকক্ষ হয়েছে বা ক্ষেত্র বিশেষে যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে গেছে।

অন্যদিকে পেন্টাগনের এই প্রতিবেদন নিয়ে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ এসোসিয়েশনের নিরস্ত্রীকরণ এবং ঝুঁকি হ্রাসকরণ বিভাগের মহাপরিচালক কিংস্টন রিফ বলেছেন, চীনের পরমাণু অস্ত্র সম্পর্কে যা বলা হয়েছে তা সত্য হয়ে থাকলে রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র চীনের চেয়ে তখনো পরমাণু অস্ত্রের দিক দিয়ে অনেক বেশি ক্ষমতাধর থাকবে। চীনের পরমাণু অস্ত্র সম্পর্কে অতিমাত্রায় উদ্বেগ প্রকাশ করে মার্কিন অস্ত্র প্রতিযোগিতা থেকে দৃষ্টি সরিয়ে দেয়া যাবে না বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

লাইটনিউজ