বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে

লেনদেন বাড়লেও ডিএসইতে সূচকের পতন

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূচক কিছুটা কমলেও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের উত্থানে সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার (২১ নভেম্বর) লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন ডিএসই ও সিএসইতে আগের কার্যদিবসের চেয়ে টাকার পরিমাণে লেনদেন বেড়েছে। তবে শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দাম কমেছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

রোববার ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৬.১৪ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ৮৫.৬৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এর আগে ১০ অক্টোবর ডিএসইএক্স সূচক ৭ হাজার ৩৬৭.৯৯ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো। তবে গত ২৫ অক্টোবর ডিএসইএক্স সূচক ১২০ পয়েন্ট কমে যায়।

ডিএসই-৩০ সূচক ১১.১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২ হাজার ৬৮৩.৮৪ পয়েন্টে। গত ৬ অক্টোবর ডিএস-৩০ সূচক ২ হাজার ৭৮৭.৮১ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো।

ডিএসইএস সূচক ৫.০৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৪৭৫.২৭ পয়েন্টে। গত ৬ অক্টোবর ডিএসইএস সূচক ১ হাজার ৬০০.০৩ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো।

রোববার ডিএসইতে ৩৫৯ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৪টির, কমেছে ২৩০টির এবং অপরিবর্তিত আছে ১৫টির। দিন শেষে ডিএসইতে এদিন ১ হাজার ৭৮০ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ৩১৯ কোটি টাকা বেশি।

অপর শেয়ারবাজার সিএসইর প্রধান সূচক সিএসইএক্স ১২.৮০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১২ হাজার ৪৭২.৬১ পয়েন্টে। গত ৩ অক্টোবর সিএসইএক্স সূচক ১২ হাজার ৯৪০.৫১ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো। তবে ২৫ অক্টোবর সিএসইএক্স সূচক ২৩৭ পয়েন্ট কমে।

সার্বিক সিএএসপিআই সূচক ১৪.৭৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২০ হাজার ৭৩৭.৮৯ পয়েন্টে। এর আগে ৩ অক্টোবর সিএএসপিআই সূচক ২১ হাজার ৫৪৯.২৪ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিলো।

সিএসআই সূচক ১০.৫৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ২৪৯.৪৪ পয়েন্টে। গত ৩ অক্টোবর সিএসআই সূচক ১ হাজার ৩৮২.৬৭ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়ে।

রোববার সিএসইতে ২৬৮টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯২টির, কমেছে ১৭৩টির এবং অপরিবর্তিত আছে ১৩টির। দিন শেষে সিএসইতে ৭১ কোটি ৮০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ১৮ কোটি টাকা বেশি।