মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৮:০৯ পূর্বাহ্ন

নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন ৫৮ লাখ মানুষ

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০
ফাইল ছবি

ডেস্ক রিপোর্ট : বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ এর দাপটে বিশ্ববাসী আজ কোনঠাসা। রোজ হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন।মারা যাচ্ছেন শয়ে শয়ে।কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না করোনাভাইরাস।তবে এই মধ্যে ইতিবাচক খবর হচ্ছে বিশ্বের প্রায় ৫৮ লাখ মানুষ এই ‘অভিশাপ’ থেকে মুক্তি পেয়েছেন।নতুন জীবন পেয়ে তারা এখন নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন।

সর্বনাশা এই ভাইরাসে সারা বিশ্বে বুধবার পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি পাঁচ লাখ ৮৬ হাজার ৩৮১ জন। তাদের মধ্যে বর্তমানে ৪২ লাখ ৭৬ হাজার ৭০১ জন চিকিৎসাধীন এবং তাদের মধ্যে ৫৭ হাজার ৭৮৮ জন (২ শতাংশ) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে।

তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন অনেক মানুষ। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে ৫৭ লাখ ৯৫ হাজার ৭৫৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এই তথ্য ওয়ার্ল্ডওমিটারের।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের আক্রান্ত ও প্রাণহানির সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম এই ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগে থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সেরে উঠেছে ১১ লাখ ৪৩ হাজার ৩৩৪ জন, ব্রাজিলে সাত লাখ ৯০ হাজার ৪০, রাশিয়ায় চার লাখ ১২ হাজার ৬৫০ জন, ভারতে তিন লাখ ৪৭ হাজার ৮৩৬, চিলিতে দুই লাখ ৪১ হাজার ২২৯, স্পেনে সেরে উঠেছে এক লাখ ৯৬ হাজার ৯৫৮ জন, ইতালিতে এক লাখ ৯০ হাজার ২৪৮, ইরানে এক লাখ ৮৮ হাজার ৭৫৮, জার্মানিতে এক লাখ ৭৯ হাজার ১০০, তুরস্কে এক লাখ ৭৩ হাজার ১১১, পেরুতে এক লাখ ৭৪ হাজার ৫৩৫, মেক্সিকোতে এক লাখ ৩৪ হাজার ৯৫৭, সৌদি আরবে এক লাখ ৩০ হাজার ৭৬৬, পাকিস্তানে ৯৮ হাজার ৫০৩, চীনের মূল ভূখণ্ডে ৭৮ হাজার ৪৭৯, কাতারে ৮১ হাজার ৫৬৪ এবং ফ্রান্সে ৭৬ হাজার ২৭৪ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

এ ছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকায় ৭৩ হাজার ৫৪৩, কানাডায় ৬৭ হাজার ৫৯৪ জন, বাংলাদেশে ৫৯ হাজার ৬২৪,সুইজারল্যান্ডে ২৯ হাজার ২০০,সিঙ্গাপুরে ৩৮ হাজার ৫০০, সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৩৭ হাজার ৫৬৬, কুয়েতে ৩৭ হাজার ৩০, দক্ষিণ কোরিয়ায় ১১ হাজার ৬১৩, মালয়েশিয়ায় আট হাজার ৩৫৪ জন এবং অস্ট্রেলিয়ায় সাত হাজার আটজন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এবং পাঁচ লাখ ১৩ হাজার ৯২৫ জন রোগী মারা গেছেন।

গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD