বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

মৌলভীবাজারে দুই দিনে ৪ প্রবাসীর বিয়ে বন্ধ

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে বিদেশফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিন যথাযথভাবে মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তবে নির্দেশনা না মানায় গত দুইদিনে মৌলভীবাজার জেলায় বিদেশফেরত চার যুবকের বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। এতে এক লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় এবং বর ও কনেকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানোর ঘটনা ঘটেছে।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে মৌলভীবাজারের পৌর কমিউনিটি সেন্টারে গ্রিসফেরত এক যুবককে বিয়ের আসর থেকে সরাসরি হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। একইসঙ্গে ভ্রাম্যমাণ আদালত করোনা ভাইরাস সংক্রমণ হতে পারে জেনেও বিয়ের আয়োজন করায় কনের বাবা এবং কমিউনিটি সেন্টারের ম্যানেজারকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন। জানা যায়, কোয়ারেন্টিনে পাঠানো বর সদর উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি চলতি মাসের ৮ মার্চ গ্রিস থেকে দেশে আসেন। তবে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে তিনি বৃহস্পতিবার বিয়ে করতে যান। মৌলভীবাজার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নেছার উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে পৌর কমিউনিটি সেন্টারে গিয়ে বিয়ে বন্ধ করে বরকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়।

কুলাউড়া উপজেলায় দুই প্রবাসী যুবকের বিয়ে বন্ধ করে দেয় স্থানীয় প্রশাসন
এদিকে বৃহস্পতিবার কুলাউড়া উপজেলায় দুই প্রবাসী যুবকের বিয়ে বন্ধ করে দেয় স্থানীয় প্রশাসন। ওইদিন দুপুরে উপজেলার দুবাই প্রবাসী বরের বিয়ের আসরে অভিযান চালায় স্থানীয় প্রশাসন। প্রবাস থেকে ফিরে কোয়ারেন্টিন না মেনে বিয়ের আয়োজন করায় তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী। পরে বিয়ের আসর থেকে বর ও কনেকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। এছাড়া শুক্রবার (২০ মার্চ) বিয়ের আয়োজন করা ওমান প্রবাসী অপর এক যুবকের বিয়েও বন্ধ করে দেওয়া হয়। কোয়ারেন্টিন না মেনে বিয়ের আয়োজন করায় ওমান প্রবাসী বরকেও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় বলে জানান ইউএনও এটিএম ফরহাদ চৌধুরী।

এরআগে, বুধবার (১৮ মার্চ) দুপুরে মৌলভীবাজার শহরে এক যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী যুবকের বিয়ে বন্ধ করেন পুলিশ সুপার মো. ফারুক আহমেদ পিপিএম (বার)। অনুষ্ঠান স্থগিত করে নিয়ম অনুযায়ী যুবককে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়। পুলিশ সুপার বলেন, আমরা বর্তমান পরিস্থিতি বুঝিয়ে বলেছি। প্রবাসী যুবক আমাদের নির্দেশনায় বিয়ের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে।

মৌলভীবাজারে সিভিল সার্জন মো. তৌহিদ আহমদ বলেন, মৌলভীবাজার জেলায় মোট ২১৬ জন প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন। আরও ৪-৫ জন তাদের আত্মীয় ও স্বজন।

শ্রীমঙ্গল দুটি সিনেমা হলকে জরিমানা

এদিকে জনসমাগম এড়াতে নির্দেশনা দেওয়ার পরেও সিনেমা হল পরিচালনা করায় পর্যটন এলাকা শ্রীমঙ্গলের দুটি হলকে জরিমানা করে বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার বিকালে রাধানাথ সিনেমা হল ও ভিক্টোরিয়া সিনেমা হলকে জরিমানা করার পাশাপাশি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ইউএনও মো. নজরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।