বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

১ দিনে যুক্তরাজ্যে ৫৬২ জনের মৃত্যু

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে যুক্তরাজ্যে একদিনে রেকর্ড সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দেশটিতে সর্বোচ্চ ৫৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দুই হাজার ৩৫২ জনে দাঁড়িয়েছে।

পাশাপাশি বুধবার আক্রান্ত হয়েছে চার হাজার ৩২৪ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২৯ হাজার ৪৭৪ জন। খবর এএফপির।

ব্রিটেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের টুইটার পেজে বলা হয়, করোনাভাইরাসে বুধবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে দুই হাজার ৩৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং চার হাজার ৩২৪ জনের দেহে ভাইরাসটির উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত দেশটিতে ২৯ হাজার ৪৭৪ জনের দেহে করোনা ধরা পড়েছে। চিকিৎসা গ্রহণের পর সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৩৫ জন।

যুক্তরাজ্যে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে প্রিন্স চার্লস, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হানকক রয়েছেন। বুধবার রাজপ্রাসাদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রিন্স চার্লস করোনামুক্ত হয়েছেন। জনসন ভিডিও লিংকের মাধ্যমে কেবিনেটকে বলেন, মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে যাওয়া মানে জনগণকে সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। পরিস্থিতি ভালো হওয়ার আগে আরও খারাপ হবে। কিন্তু পরে ভালো হবে। দেশটির সরকার তিন সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছে।

করোনা পরীক্ষার গতি বাড়াচ্ছে ব্রিটেন : চলতি মাসের মাঝের দিকে দিনে গড়ে ২৫ হাজারের বেশি মানুষের করোনা পরীক্ষার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে যুক্তরাজ্য। বর্তমানে দেশটিতে একদিনে করোনা পরীক্ষার সক্ষমতা রয়েছে ১২ হাজার ৭৫০ জনের। তবে এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে সেই সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির গৃহায়নমন্ত্রী রবার্ট জেনরিক।

তিনি বলেন, সোমবার ব্রিটেনে আট হাজার ২৪০ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। গত সপ্তাহের শেষের দিকে ৯ শতাধিক স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা গুরুতর পরিস্থিতিতে চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী পরীক্ষার সক্ষমতা বাড়ানোর দিকে গুরুত্ব দিচ্ছি। আমরা মনে করি, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আমাদের বর্তমান ১২ হাজার ৭৫০ জনের পরীক্ষার সক্ষমতাকে বাড়িয়ে ১৫ হাজারে নিতে পারব। এটি উল্লেখযোগ্য পরিমাণে হলেও আমাদের যেরকম পরীক্ষা করা দরকার তেমন নয়। তবে এপ্রিলের মাঝের দিকে এই সংখ্যা বেড়ে ২৫ হাজারে পৌঁছাবে বলে প্রত্যাশা করছি। এদিকে হাসপাতালে রোগীর পাশাপাশি মেডিকেল কর্মীদেরও করোনা পরীক্ষা শুরু করেছে ব্রিটেন। কিন্তু সমালোচকরা বলছেন, দেশটিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না।

লাইটনিউজ/এসআই