বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

ঘরে তৈরি হ্যান্ড স্যানিটাইজার কি নিরাপদ?

হাত পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখার সহজ ও দ্রুত পদ্ধতি হিসেবে ব্যবহার করা হয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার। বর্তমান সময়ে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকার জন্য হাত পরিষ্কার রাখা ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়। সকলে একসাথে ও কয়েকটি করে হ্যান্ড স্যানিটাইজার কেনার ফলে অল্প সময়ের মাঝেই স্টক আউট হয়ে যায় বিভিন্ন ব্র্যান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজার।

এ সময়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের অভাব দূর করতে ঘরেই বিভিন্ন উপাদান ব্যবহারের মাধ্যমে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করতে শুরু করলেন অনেকে। যা ভাইরাল হয়ে যায় অল্প সময়ের মাঝেই। কিন্তু ঘরে তৈরি হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের জন্য কতটা নিরাপদ, এ প্রশ্ন থেকেই যায়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রল অ্যান্ড প্রিভেনশন (CDC) জানাচ্ছে, বাজারে সহজলভ্য সাধারণ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের মাঝে যেগুলোতে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত অ্যালকোহল রয়েছে সেগুলোই জীবাণু ধ্বংসে কার্যকর। এখানেও একটি কিন্তু রয়েছে, কারণ সকল জীবাণু হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারে ধ্বংস হয় না।

 

কিন্তু যে সকল হ্যান্ড স্যানিটাইজার ঘরে তৈরি করা হচ্ছে সেগুলো কি প্রতিদিনের ব্যবহারের জন্য নিরাপদ? অ্যামেরিকান ক্লিনিং ইন্সটিটিউটের মুখপাত্র ব্রায়ান স্যানোসি বলেন, ‘দোকানে যদি হ্যান্ড স্যানিটাইজার পাওয়া না যায় তবে ঘরে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরিকে আমরা কঠোরভাবে নিরুৎসাহিত করছি। ঘরে বসে বিভিন্ন কেমিক্যাল পণ্য নিয়ে খেলা ভেবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করা ও সেটা ব্যবহার করা আশঙ্কাজনক এবং এটা থেকে বিপদের সমূহ সম্ভাবনা থাকে।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোন উপাদানগুলো মেশালে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি হয় এটা জানা এবং নিরাপদ ও ব্যবহারযোগ্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করা সম্পূর্ণ ভিন্ন কথা। বানিজ্যিকভাবে যে সকল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করা হয় তা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা ও যাচাইবাছাই করেই বাজারে ছাড়া হয়।’

উদ্বেগ প্রকাশ করে স্যানোসি জানান, ইন্টারনেটে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির বহু ফর্মুলা পাওয়া যাবে। কিন্তু কোনটা কার্যকর, সঠিক ও নিরাপদ সেটা কিন্তু কেউই জানে না। এছাড়া কেমিক্যাল উপাদানের পরিমানে সামান্য এদিক সেদিক হলেই বড় ধরনের দুর্ঘটনার সম্ভাবনা তৈরি হয়। কারণ যে কোন রাসায়নিক ফর্মুলাই বিপদজনক হতে পারে।

এক্ষেত্রে তিনি পরামর্শ দেন, হ্যান্ড স্যানিটাইজার সহজলভ্য না হলে সাবান-পানির সাহায্যে হাত ধোয়ার জন্য। কারণ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের চেয়ে সাবানের সাহায্যে ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে হাত ধোয়া করোনাভাইরাস দূর করার ক্ষেত্রে বহুগুণে কার্যকর পদ্ধতি।