বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

ঢাকার পর আক্রান্তে শীর্ষে নারায়ণগঞ্জ

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে দেশে দেশে ঘণ্টায় ঘণ্টায় মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছে মানুষ। মঙ্গলবার মাত্র ৯ থেকে ১০ ঘণ্টার ব্যবধানে এ ভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা বাড়ে ৫ হাজারের বেশি।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত (৭ এপ্রিল) ১৬৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার নতুন করে ৪১ জন আক্রান্ত হন। এ ভাইরাসে আক্রান্তের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে ঢাকা মহানগর। এর পরেই রয়েছে দেশের মধ্যাঞ্চলের জেলা নারায়ণগঞ্জ।

ঢাকায় এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৮৫ জন। আর নারায়ণগঞ্জে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮। সবমিলিয়ে, এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে ১৭টি জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

বাকি জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা- মাদারীপুরে ১১, চট্টগ্রামে ৩, কুমিল্লায় ২, গাইবান্ধায় ৫, চুয়াডাঙ্গায় ১, গাজীপুরে ১, জামালপুর ৩, শরীয়তপুরে ১, কক্সবাজারে ১, নরসিংদীতে ১, মৌলভীবাজারে ১, সিলেটে ১, রংপুরে ১ এবং ঢাকার মহানগরীর বাইরে চার উপজেলায় ৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর থেকে প্রায় নিয়মিত কয়েকজন করে নতুন আক্রান্ত রোগীর খবর দিচ্ছিল আইইডিসিআর। এর মধ্যে ৫ এপ্রিল একবারে ১৮ জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়। আর তার পরদিন ৬ এপ্রিল নতুন করে ৩৫ জন শনাক্ত বলে জানানো হয়। সবশেষ হিসাবে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৪। মারা গেছেন ১৭ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৩ জন।

এই মৃতের সংখ্যায় ঢাকায় বেশি। আর নারায়ণগঞ্জে এখন পর্যন্ত ৫ জন মারা গেছেন।

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা এখন পর্যন্ত প্রায় ১৪ লাখ ৩১ হাজার ৭০ জন। মারা গেছেন ৮২ হাজার ৮০ জন। তবে ৩ লাখ ২ হাজার ১৫০ জন রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে; যার মূলে রয়েছে মানুষে মানুষে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। সে বিষয়টি মাথায় রেখে গৃহীত পদক্ষেপগুলোর মধ্যে সর্বশেষ মুসল্লিদের ঘরে নামাজ পড়তে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের আহ্বানও রয়েছে। এ ছাড়া, মানুষকে ঘরে রাখতে রাজপথের পাশাপাশি পাড়া-মহল্লায় টহল দিচ্ছে সশস্ত্র বাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ।

লাইটনিউজ/এসআই