বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

রাজীবপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করে ব্যাবসয়ীকে তুলে নিয়ে মারপিট ও টাকা লুট

রাজীবপুর – রৌমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধি : রাজীবপুর উপজেলা শহরের থানা মোড় সংলগ্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে এরশাদ আলী(৫৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে মারপিট এবং দোকান থেকে তুলে নিয়ে আরেক দোকানে নিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখার ঘটনা ঘটেছে।
শনিবার (১১) এপ্রিল ওই ঘটনা ঘটে।এরশাদ আলীকে মারপিট করার সময় তার দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকাও ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় বলে থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে।
স্থানীয় ব্যক্তি এবং থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে আরও জানা গেছে, শনিবার সকালের দিকে সবুজবাগ গ্রামের এরশাদ আলীর বাড়ি সংলগ্ন পুকুর থেকে জোর পূর্বক মাটি কেটে নিচ্ছিল কাচারী পাড়া গ্রামের গোলাম মোস্তফা(৩৫),গোলাম ফারুক(৩৮) ও আব্দুর রফিক(৫০)।এসময় এরশাদ আলীর ছেলে রঞ্জু মিয়া(২৫) ও নজরুল ইসলাম(বাবু)(৩১)মাটি কাটতে নিষেধ করলে তাদের মারপিট করে।পরে স্থানীয়রা এসে  দুই ভাইকে উদ্ধার করে।
মারপিটের শিকার হওয়া দুই ভাই রঞ্জু ও বাবু  রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে। তাদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর দায়িত্বশীল ব্যক্তি এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
এই ঘটনার জেরে রাজীবপুর বাজারে এরশাদ আলী তার ইলেকট্রনিকস এর দোকান খুলে পণ্য বিক্রি করার সময় কাচারীপাড়া ও সবুজবাগ গ্রামের আব্দুর রফিক(৫০),মঞ্জুরুল ইসলাম(২২),গোলাম মোস্তফা(৩৫), বাবুল হোসেন(৩৫),বাদল মিয়া(৩২),সবুজ মিয়া(৩০), সোলায়মান(২৫) একযোগে দোকানে ঢুকেই এরশাদ আলীকে মারপিট শুরু করে এসময় তাদের হাতে থাকা লাঠি ও রড দিয়ে সাজোরে পেটায় এবং উপর্যপূরি কিল ঘুসি মারতে মারতে দোকান থেকে টেনে হিচড়ে বের করে বাজারের সুপার মার্কেটের আরেকটি দোকানে নিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে এবং মারপিট করে।
পরে স্থানীয়রা এরশাদ আলীকে উদ্ধার করে। এসময় বাজারের দায়িত্বরত পুলিশ, আনসার সদস্য এবং চৌকিদাররা ঘটনাস্থলে আসছে এমন খবর পেয়ে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।
এরপর এরশাদ আলীকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।আজ রবিবার(১২এপ্রিল) রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. দেলোয়ার হোসেন বলেন, রোগীর শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তিনি এখনও হাসপাতালে ভর্তি আছে এবং তার চিকিৎসাধী চলছে ।
দিনদুপুরে একজন ব্যবসায়ীকে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে হামলা করায় বাজারের অন্যন্যা ব্যবসায়ীরা আতঙ্কগ্রস্থ হয়েছেন।ব্যবসায়ীকে মারধোরের জন্য বণিক সমিতির পক্ষ থেকে প্রতিবাদ সভার দাবিও জানিয়েছেন তারা।
রাজীবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন এরশাদ আলী সাংবাদিকদের জানান,আমার নিজস্ব পুকুর এবং বসতবাড়ি  দখল করার জন্য দীর্ঘ দিন থেকে এই চক্রটি তৎপরতা চালাচ্ছে।গতকাল সকালে জোর করে মাটি কাটার সময় বাঁধা দিলে আমার দুই ছেলেকে মারপিট করে।আবার বাজারে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে  পিটিয়ে জখম এবং মারপিট করে। ক্যাশবাক্স থেকে টাকাও ছিনিয়ে নিয়েছে তারা।পবিরার পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছেন বলেও জানান তিনি।
লিখিত অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে রাজীবপুর থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) গোলাম মোর্শেদ তালুকদার জানান,ওই ঘটনার এরশাদ আলী এবং তার ছেলে নজরুল ইসলাম  বাদী হয়ে পৃথক ভাবে কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে দুটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।