বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

উপসর্গ নেই তারপরেও করোনায় আক্রান্ত

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় এবার এক নারী প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ওই নারীর শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ না থাকলেও নারায়ণগঞ্জ থেকে আসায় তার নমুনা টেস্ট করা হয়। টেস্টের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নাজমা আক্তার।

প্রায় ৩০ বছর বয়সী ওই নারী উপজেলার গণ্ডগোহালি গ্রামের বাসিন্দা। তার স্বামী নারায়ণগঞ্জের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। স্বামীর সঙ্গে তিনি সেখানেই থাকতেন।

ডা. নাজমা আক্তার জানান, গত রোববার স্বামীর সঙ্গে ওই নারী নারায়ণগঞ্জ থেকে পুঠিয়ায় আসেন। সেদিন তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। পরদিন তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। মঙ্গলবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ওই নারীর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবে তার স্বামীর রিপোর্ট নেগেটিভ। দু’জনেরই নমুনা আবারও বুধবার পরীক্ষা করা হবে।

ডা. নাজমা আরও জানান, এ দম্পতির শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ নেই। যেহেতু তারা আক্রান্ত এলাকা থেকে ফিরেছেন সেজন্য নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকেই তারা ওই নারীর করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন।

এখন ওই নারী যাদের সংস্পর্শে গেছেন তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হবে। তাদের বাড়িও লকডাউন করা হবে। আক্রান্ত নারীর শারীরিক অবস্থা ভালো থাকায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকেই তার চিকিৎসা চলবে।

এদিকে গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও নানা কৌশলে এখনও রাজশাহী আসছেন মানুষ। কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে পুঠিয়া উপজেলায় আসা এক ব্যক্তির প্রথম করোনা শনাক্ত হয় গত রোববার। নারায়ণগঞ্জ থেকে জেলার বাগমারায় আসা আরেক ব্যক্তির করোনা ধরা পড়ে সোমবার। রাজশাহীতে এনিয়ে কোভিড-১৯ ধরা পরলো তিনজনের।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেছে প্রশাসন। গত এক সপ্তাহে যারা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে ফিরেছেন তাদের প্রত্যেকেরই নমুনা পরীক্ষা করার সিদ্ধান্তের কথাও জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

লাইটনিউজ/এসআই