বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

সবচেয়ে বেশি ছড়িয়েছে পুরান ঢাকায়: ঢাকার কোন এলাকায় কত জন করোনা আক্রান্ত

লাইট নিউজ প্রতিবেদক : সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন ২০৯ জনসহ দেশে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা এক হাজার ১২ জন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য বলছে, ঢাকার বাইরে আরও ৪১টি জেলায় ছড়িয়েছে করোনার সংক্রমণ।

মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনে নতুন ২০৯ জনের এই ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার তথ্য জানান প্রতিষ্ঠানটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও রোগ গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) দেওয়া তথ্যানুযায়ী সবচেয়ে বেশি ১১৪ জন কোভিড-১৯ সংক্রমিত ব্যক্তি পাওয়া গেছে পুরান ঢাকায়। এরপরেই রয়েছে মিরপুর। মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ৮টা পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার ফল অনুযায়ী এই তথ্য দেওয়া হয়।

এর মধ্যে পুরান ঢাকার ওয়ারী এলাকায় ২৫ জন, লালবাগে ১৮ জন, হাজারীবাগে আটজন, বংশালে সাতজন, সূত্রাপুরে ছয়জন, সোয়ারীঘাটে তিনজন, বাবুবাজারে ১১ জন এবং চকবাজারে ছয়জনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

এ ছাড়া আজিমপুরে ছয়জন, জেলগেট এলাকায় দুজন, ইসলামপুরে দুজন, নারিন্দায় দুজন, চাংখারপুলে দুজন, কোতোয়ালিতে দুজন, সূত্রাপুরে দুজন ও লক্ষ্মীবাজারে দুজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এর বাইরে উর্দুরোড, বুয়েট আবাসিক এলাকা, কদমতলী, মিটফোর্ড এলাকা, নবাবপুর, ঢাকেশ্বরী, নওয়াবপুর, আরমানিটোলা, ধোলাইখাল ও দয়াগঞ্জে একজন করে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন।

এদিকে রাজধানীর বৃহত্তর মিরপুরের বিভিন্ন এলাকায় এখন পর্যন্ত ৭২ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে টোলারবাগে ১৯ জন, মিরপুর- ১১ এলাকায় ১১ জন, মিরপুর-১ এলাকায় ছয়জন, মিরপুর-১৪ এলাকায় পাঁচজন, মিরপুর-১০ এলাকায় দশজন এবং মিরপুর-১২ এলাকায় ১০ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এছাড়া মিরপুর ৬, পীরেরবাগ, শাহআলীবাগ ও মিরপুর-১৩ এলাকায় দুজন করে কোভিড-১৯ সংক্রমিত পাওয়া গেছে। এছাড়াও কল্যাণপুর, কাজীপাড়া, জুরাইন এবং মানিকদিতে একজন করে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে।

রাজধানীর বাসাবো এলাকায় ১৪ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ আক্রান্ত পাওয়া গেছে। এছাড়া যাত্রাবাড়ীতে ১৯ জন, গেন্ডারিয়ায় ১২ জন, মীরহাজারীবাগে দুজন, দয়াগঞ্জে একজন, বানিয়ানগরে একজন, গুলিস্তানে দুজন, মাতুয়াইলে একজন, মুগদায় একজন, সায়েদাবাদ এলাকায় একজন, শ্যামপুর এলাকায় একজন, খিলগাঁও একজন, সবুজবাগ এলাকায় দুজন, মাতুয়াইল এলাকায় একজন ও শনির আখড়ায় একজন কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তি পাওয়া গেছে।

রাজধানীর শান্তিনগর এলাকায় ছয়জন, মগবাজার এলাকায় ১০ জন, বেইলি রোড এলাকায় তিনজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও শাহবাগে তিনজন, মালিবাগে চারজন, পুরানা পল্টন, শান্তিনগর ও রাজারবাগ এলাকায় ছয়জন ব্যক্তির মাঝে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও মতিঝিলে একজন, ইস্কাটনে একজন, শান্তিবাগে একজন ও সিদ্ধেশ্বরী এলাকায় একজন কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছেন।

এদিকে রাজধানীর ধানমন্ডিতে ১৬ জন, গ্রিনরোডে ১০জন জিগাতলা এলাকায় চারজন ও হাতিরপুল এলাকায় তিনজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও ফার্মগেটে একজন, বেগুনবাড়িতে একজন, রায়েরবাজারে একজন ও সেন্ট্রাল রোডে একজন কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছেন।

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ১৭ জন, আদাবরে পাঁচজন, আগারগাঁওয়ে দুজন ও বসিলায় একজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। বনানীতে আটজন ও গুলশানে ছয়জনের মধ্যে ভাইরাসটি সংক্রমিত হয়েছে। এছাড়াও বাড্ডা এলাকায় ছয়জন, রামপুরায় দুজন, ভাটারায় একজন ও হাতিরঝিলে একজন ও বেড়াইদে একজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

রাজধানীর উত্তরায় ১৭ জন, মহাখালীতে নয়জন ও তেজগাঁও এলাকায় ১৫জনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। এছাড়াও নিকুঞ্জ এলাকায় একজন এবং আশকোনায় একজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে। বসুন্ধরা আবাসিক আলাকায় চারজন, কুড়িলে একজন ও বারিধারা এলাকার একজন ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছে। এছাড়াও কামরাঙ্গীরচর এলাকায় দুজনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ পাওয়া গেছে।

আর শ্যামলী ও রায়েরবাগ এলাকায় একজন করে কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তিও পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর।