বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

করোনায় মারা গেছেন নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্টের চিফ অব স্টাফ আবা কিয়ারি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্টের চিফ অব স্টাফ আবা কিয়ারি মারা গেছেন। শনিবার প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের দুটি সূত্র কিয়ারির মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছে বলে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

দারিদ্রপীড়িত আফ্রিকা মহাদেশে করোনার প্রাদুর্ভাব লাখ লাখ মানুষের প্রাণহানি ঘটাতে পারে বলে জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়েছে। ইতোমধ্যে এই মহাদেশে এক হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

৭৭ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ বুহারির চিফ অব স্টাফ কিয়ারিকে (৭০) নাইজেরিয়ার অন্যতম ক্ষমতাধর হিসাবে মনে করা হয়। দেশটির শীর্ষ এই কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আগে ডায়াবেটিস ও অন্যান্য রোগে ভুগছিলেন বলে জানানো হয়েছে।

নাইজেরিয়ায় এখন পর্যন্ত ৪৯৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ১৭ জন।

দেশটির প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের মুখপাত্র গারবা শেহু এক টুইট বার্তায় বলেছেন, প্রেসিডেন্টের দফতর অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে চিফ অব স্টাফ মাল্লাম আবা কিয়ারির মৃত্যু ঘোষণা করছে। কোভিড-১৯ পরীক্ষায় তার ফল পজিটিভ এসেছিল এবং তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন। কিন্তু শুক্রবার মারা গেছেন তিনি।

পশ্চিম আফ্রিকার এই দেশটিতেই কিয়ারিই প্রথম প্রভাবশালী কর্মকর্তা; যিনি করোনার কাছে হার মানলেন। প্রেসিডেন্ট বুহারির গেটকিপার হিসাবে কাজ করতেন তিনি। মোবাইল নির্মাতা কোম্পানি সিমেনসের একটি বৈঠকে যোগ দিতে মার্চের শুরুর দিকে জার্মানিতে নাইজেরিয়ার প্রতিনিধিদলের সেঙ্গ গিয়েছিলেন কিয়ারি।

সেখান থেকে ফেরার পর দেশের শীর্ষস্থানীয় সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গেও একাধিক বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। নিজের শারীরিক অসুস্থতার তথ্য গোপন রেখে ২০১৭ সালে লন্ডনে পাঁচ মাস চিকিৎসা নেন প্রেসিডেন্টের প্রধান এই নিরাপত্তা কর্মকর্তা।