বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

 জাপানের বেহাল দশা ক্রমেই ফাঁস হচ্ছে

সংক্রমণ আর মৃত্যু বাড়ার সাথে সাথে স্পষ্ট হচ্ছে বিশ্ব অর্থনীতির অন্যতম পরাশক্তি ও এশিয়ার সবচে উন্নত দেশ জাপানের স্বাস্থ্য খাতের বেহাল দশা। করোনাভাইরাস চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে তাদের স্বাস্থ্যখাত কতটা দুর্দশাগ্রস্ত। একের পর এক হাসপাতাল ঘুরেও চিকিৎসা পাচ্ছেন না অনেক রোগী। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি এর প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এসব তথ্য।

চিকিৎসকরা বলছেন, ‘প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সরঞ্জাম পিপিই’র অভাবে রেইন কোট বা ব্যাগ দিয়ে তৈরি পোশাক পরে দিতে হচ্ছে সেবা।’

বিবিসি বলছে, ‘করোনার উপসর্গ নিয়ে একজন রোগী কমপক্ষে ৮০টি হাসপাতাল ঘুরেছেন সেবার জন্য। সবগুলো হাসপাতালই ফিরিয়ে দিয়েছে তাকে। কারণ এর কোনটিতেই নেই করোনা রোগীর চিকিৎসা দেয়ার পর্যাপ্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা। সংবাদ সম্মেলনে তা শিকারও করে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। ‘

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে বলেন, ‘চিকিৎসক এবং হাসপাতাল কর্মীদের হতাশার কান্না শুনেছি। আমি জানি, এই মুহূর্তে নার্স এবং ডাক্তাররা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে। তাদের শারীরিক এবং মানসিক ভাবে ফিট থাকার বিকল্প নেই। আমার অনুরোধ আপনারা চিকিৎসা দেয়া থেকে বিরত থাকবেন না। ‘

চিকিৎসকরা বলছেন, ‘করোনা মোকাবেলায় মোটেও প্রস্তুত নয় জাপান। বেশির ভাগ হাসপাতালে নেই আইসিইউ, ভেন্টিলিটরের মতো সুবিধা। দেয়া হচ্ছে না সুরক্ষা সরঞ্জামও। এমনকি, কিট সংকটে টেস্টই করা যাচ্ছে না বেশির ভাগ মানুষের।’

জাপানে, করোনায় মৃত্যু এবং সংক্রমণ রোধে দেশব্যাপি চলছে জরুরি অবস্থা।