বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুরে চেয়ারম্যানের চুরি করা ২০ বস্তা চাল উদ্ধার

 

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের আত্মসাত করা কর্মহীনদের জন্য বরাদ্দকৃত ২০ বস্তা ত্রাণের চাল উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় ইউনিয়নের গোপালপুর মোড় সংলগ্ন আয়াত উল্লাহ নামক ব্যক্তির বাড়ি থেকে এ ত্রাণের চাল উদ্ধার করা হয়।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুজ্জোহা এবং বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হলে এসময় করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষগুলো তাদের ঘিরে ধরে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাদের আশ্বস্ত করে ডিলার আলাউদ্দীনকে আটক করে এবং উদ্ধারকৃত চালগুলো নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুজ্জোহা বলেন, আমি কেন আসছি চাল চোর ধরতে। চাল চোর ধরা পড়েছে। যে ডিলার সে আসলে দায়ী এর পেছনে কে আছে না আছে এটি পুলিশ তদন্ত করে বের করবে।

এর আগে করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া সুবিধাবঞ্চিতদের নামে বরাদ্দকৃত সরকারি চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠে সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানার ১০ নং কৈজুরী (ইউপি) চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদ ভাঙিয়ে এলাকায় যা ইচ্ছে তাই করছে চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম। যার কারণে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে লকডাউন ভেঙে বিক্ষোভ করে তার বাড়ি ঘেরাও করে।

এ বিষয়ে কৈজুরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুনুর রশিদ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ মহামারী দুর্যোগ করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া একটি পরিবারও যেন সরকারি সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত না হয়। কিন্তু স্থানীয় চেয়ারম্যান শুরু থেকেই সরকারি চালসহ-নৃত্য প্রয়োজনীয় দ্রবাদি সাধারণ অসহায় জনগণকে না দিয়ে আত্মসাত করছে। এমনকি স্থানীয় আওয়ামী লীগের কোন নেতাকর্মীর সাথে তার কোন সুসম্পর্ক নেই।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল আলম বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য ত্রাণ বিতরণে আন্তরিক হলেও কৈজুরী ইউনিয়নের জন্য বরাদ্দকৃত চাল বারবার আত্মসাত করছে স্থানীয় চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম। তাই মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া সাধারণ জনগণ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে।

লাইট নিউজ/আহোশা