বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

২০ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন যুক্তরাষ্ট্রে তেলের দাম

 

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অপরিশোধিত তেলেরে বাজারও মন্দা অবস্থায় পৌঁছেছে। ভাইরাসটির ফলে গত দুই দশকের মধ্যে মার্কিনী তেলের দাম সর্বনিম্ন স্থানে রয়েছে।

সোমবার (২০ এপ্রিল) মার্কিন শেয়ারবাজারে অপরিশোধিত তেল কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দাম কমেছে ২০ শতাংশ। যার ফলে ব্যারেল প্রতি তেলের দাম দাঁড়িয়েছে ১৫ ডলারেরও নিচে। যা ১৯৯৯ সালের পর সর্বনিম্ন। আর করোনায় চাহিদা কমে যাওয়ায় দরপতন অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে লকডাউন তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্তে সমন্বয়হীনতায় ভুগছে ট্রাম্প ও স্টেট গভর্নররা।

জাতিসংঘের বড় এজেন্সিগুলোর প্রধানরা অর্থনৈতিক দুর্বল দেশসমূহে করোনা ঝুঁকি নিয়ে সতর্কতামূলক একটি গ্রাফিক জারি করেছে। ওই গ্রাফ থেকে জানা যায়, জাতিসংঘের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক দাতা দেশগুলো মার্চ মাসে করোনার জন্য ২ বিলিয়ন ডলার দেওয়ার অঙ্গীকার করেছে। যা জাতিসংঘের অনুরোধের এক চতুর্থাংশ।

কোভিড-১৯ ভাইরাসের নিয়মিত ব্রিফিংকালে গত রোববার (১৯ এপ্রিল) মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, করোনা সংক্রমণ আছে কিনা তা জানতে ৪.১৮ মিলিয়ন মার্কিনীর পরীক্ষা করা হয়েছে। বৃহৎ আকারের এই পরীক্ষাগুলো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার জন্য পথ সুগম করেছে। আর এটি পরীক্ষার একটি রেকর্ড বলে দাবি করেন ট্রাম্প।

তবে স্টেট গভর্নররা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার জন্য ট্রাম্পের এই বক্তব্যকে ভ্রান্ত বলে আখ্যা দিয়েছেন। তাদের দাবি পরীক্ষার ব্যবস্থা যথেষ্ট ছিল না।

আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ড ও মিটারের তথ্য অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে লাখেরও বেশি এবং মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০ হাজার ৫৬৫ জনে। এর মধ্যেই নিউইয়র্কেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৪৭ হাজার ২৫০ জন এবং মারা গেছেন ১৮ হাজার ২৯৮ জন। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ৭১ হাজার ১৯৬ করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।