বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

করোনায় আরো ৮ জনের মৃত্যু

জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট ও পাতলা পায়খানায় ২৪ দিনে দেশের বিভিন্ন স্থানে ২৩৪ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে মঙ্গল ও বুধবার মারা যান আটজন। তারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন কিনা, জানতে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

ময়মনসিংহ

নগরীর এসকে হাসপাতালের আইসোলেশনে বুধবার দুপুরে করোনার উপসর্গ নিয়ে দু’জন মারা গেছেন। সিভিল সার্জন ডা. এবিএম মসিউল আলম জানান, ফুলবাড়িয়া উপজেলার একজন দু’দিন আগে নিউমোনিয়া নিয়ে এসকে হাসপাতালে ভর্তি হন এবং গাজীপুর জেলার মাওনা থেকে অপরজনকে বুধবার সকালে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়। দুপুরে মারা যান এই দুজন।

রাজশাহী

বাগমারা উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নে সর্দি, জ্বর, ডায়েরিয়া ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুরে নিজ বাড়িতে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে মৃত ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। পরিবারের সদস্যদের কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

খুলনা

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার ফ্লু কর্নারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ২টায় তার মৃত্যু হয়। তিনি কিডনি রোগ এবং শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। তার শরীরে করোনাভাইরাস আছে কিনা তা জানার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটের ফোকাল পার্সন ডা. শৈলেন্দ্র নাথ বলেন, ওই ব্যক্তির বাড়ি ফুলতলা উপজেলায়।

বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী)

বালিয়াকান্দি উপজেলার চষাবিলা গ্রামে করোনা উপসর্গ নিয়ে মঙ্গলবার রাতে মারা গেছেন এক ব্যক্তি। জ্বর-সর্দি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মঙ্গলবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান। বুধবার তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানান রাজবাড়ী সিভিল সার্জন ডা. নুরুল ইসলাম।

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ)

জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের কিশোরপুর গ্রামের এক ব্যক্তি করোনা উপর্সগে মারা গেছেন। বুধবার দুপুরে সিলেটের শহীদ সামছুউদ্দিন হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক হিমাংশু রায় যুগান্তরকে বলেন, তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

মেহেরপুর

করোনা উপসর্গ নিয়ে বুধবার দুপুরে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি মুজিবনগর উপজেলার ভবরপাড়ায়। মেহেরপুরের সিভিল সার্জন মো. নাসির উদ্দীন জানান, তার নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

ভোলা

ভোলার সদর উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের ২০ বছর বয়সী এক তরুণ বমি, পাতলাপায়খানা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা গেছে। মঙ্গলবার রাতে মারা যাওয়ার পর তার নমুনা পরীক্ষা করার জন্য পাঠানো হয়েছে বলে জানান ভোলা সদর হাসপাতালের আবাসিক ডাক্তার তৌয়বুর রহমান। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিকের নির্দেশে জেলা সদরের পশ্চিম ইলিশার ৩নং ওয়ার্ডে তিনটি বাড়ি ও বাপ্তা এলাকার দুটি বাড়ি লকডাউন করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মিজানুর রহমান।

লাইটনিউজ/এসআই