বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

করোনা রোগীদের উপহার পাঠালো সিরাজগঞ্জ একুশে ফোরাম

 

সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে করোনা আক্রান্ত রোগী ও প্রাথমিক আইসোলেশনে রাখা অসুস্থ ব্যক্তির জন্য ফল ও খাদ্য সামগ্রী উপহার পাঠিয়েছে একুশে টেলিভিশনের মানবিক সেবা সংগঠন ‘সিরাজগঞ্জ একুশে ফোরাম’। পাশাপাশি তাদের সুস্থতার জন্য দোয়া কামনা করা হয়েছে।

জানা গেছে,গত ১৪ এপ্রিল রাতে নারায়নগঞ্জ থেকে মাইক্রোযোগে সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে নিজ বাড়ির কাছে স্ত্রী ও ২ সন্তানকে সাথে নিয়ে আসলে এজমার রোগী বৃদ্ধ রজব আলীকে (৬৫) নামতে দেয়নি এলাকাবাসী। পরে তিনি দৌলতপুর ইউনিয়নের গোপরেখী গ্রামের ভায়ড়ার বাড়িতে অবস্থান নেন। সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আসে ১৯ এপ্রিল রাতে। এরপর ৫টি গ্রাম লকডাউন দিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগ বাড়িতেই রাখে চিকিৎসার জন্য।

এছাড়া ঢাকার গেন্ডারিয়ার সবজি ব্যবসায়ী এনায়েতপুরের ছামু মোল্লা (৪৫) জ্বর ও সর্দি-কাশি নিয়ে ২০ এপ্রিল বাড়িতে এলে তাকেও উঠতে দেয়নি লোকজন। তার নমুনা সংগ্রহের পর এনায়েতপুর ইসলামীয়া ফাজিল সিনিয়র স্নাতক মাদ্রাসায় প্রাথমিক আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

এই দু’জনই স্বাস্থ্য বিভাগের পর্যবেক্ষণে চিকিৎসাধীন। সামাজিকভাবে চরম হেয় হওয়া দুই রোগী ও তাদের পরিবার অসহায়ত্বের মধ্যে বসবাস করছে। সরকারিভাবে তাদেরকে কিছুটা সহযোগিতা করা হলেও অন্য কেউ পাশে দাঁড়ায়নি। করোনা আতংকে সামাজিক দ্বায়বদ্ধতা পালনেও ভুমিকা পালন করেনি এলাকাবাসী।

এ অবস্থায় শনিবার সকালে ইটিভি একুশে ফোরামের পক্ষে থেকে উপহার হিসেবে তরমুজ,আনারস, মাল্টা, পেয়ারা, লেবু, কলা, শসা, হরলিক্স, ২ ধরনের সাবান, টিসু, মোমবাতি, ম্যাচ ও ইফতারী সামগ্রী পাঠানো হয়। উপহারের প্যাকেটের সঙ্গে একটি চিরকুট দেওয়া হয়। এতে লেখা ছিল ‘ইয়া আল্লাহু, ইয়া রহমানু, ইয়া রাহিম। জনাব রজব আলী মোল্লা, আপনি খাজা ইউনুস আলী এনায়েতপুরী (রঃ) দোয়ার বরকতে করোনা যুদ্ধে সফল যোদ্ধা হিসেবে আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন ইনশাআল্লাহ। সুস্থতা কামনায়, একুশে ফোরাম’। একইভাবে ছামু মোল্লাকেও চিরকুট দেয়া হয়।

এদিকে শনিবার দুপুরে প্রথমে এনায়েতপুর ইসলামীয়া ফাজিল সিনিয়র স্নাতক মাদ্রাসার আইসোলেশনে দায়িত্বপ্রাপ্ত চৌকিদারের কাছে ছামু মোল্লাকে ফলের কার্টুন এবং পরে গোপরেখীতে ভায়ড়ার বাড়িতে চিকিৎসাধীন করোনা রোগী বৃদ্ধ রজব আলী মোল্লার দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসকের মাধ্যমে আরেকটি কার্টুন হস্তান্তর করা হয়।

তখন গোপরেখীতে রজব মোল্লা ও ছামু মোল্লার সুস্থতা কামনা করে দোয়া করা হয়। এসময় একুশে ফোরামের উপদেষ্টা টিভির জেলা প্রতিনিধি স্বপন মির্জা, ফোরাম সদস্য তাঁত শ্রমিক জাহিদ হোসেন, আব্দুল আলীম, শিক্ষক সুজন, সাব্বির হোসেন, ছাত্র শরিফুল ইসলাম ও ভ্যান শ্রমিক কামাল হোসেন সহ স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন।

একুশে ফোরামের উপদেষ্টা আলহাজ্ব শেখ আব্দুস সালাম ও সভাপতি আখতারুজ্জামান তালুকদার জানান, ২০০৮ সালে সংগঠনটি সাড়া বছর নিজস্ব উদ্যোগে অসহায়দের বিয়ে ও দুর্যোগে সহায়তা, শিক্ষাক্ষেত্রে মেধাবীদের পাশে থাকা ও মানুষের চিকিৎসায় সহযোগিতা করছে। আমাদের ফোরাম ভয়কে জয় করে করোনা রোগীদের পাশে দাঁড়াতে পেরেছে এটাই আমাদের স্বার্থকতা। তারা আরও জানান, করোনা রোগীদের অবজ্ঞার চোখে না দেখে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে তাদের সহযোগিতা ও সহমর্মিতা জানানো উচিত।

লাইট নিউজ/আহোশা