বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

অপ্রাপ্তদের করা অপরাধে মৃত্যুদণ্ড বাতিল করল সৌদি আরব

 

অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় যারা অপরাধ করেছে, তাদের আর মৃত্যুদণ্ড দেবে না সৌদি আরব। সৌদি আরবের বাদশাহ সালমানের জারি করা রাজকীয় বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে রাজ্য সমর্থিত মানবাধিকার কমিশন (এইচআরসি) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

চলতি মাসের শুরুর দিকে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তাদের সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদনে বলেছে, ইরান ও চীনের পরে সৌদি আরবে বিশ্বের সব চেয়ে বেশি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। খবর: আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা।

রোববার (২৬ এপ্রিল) এইচআরসি সভাপতি আওওয়াদ আলাওয়াদ এক বিবৃতিতে বলেন, রাজকীয় বিজ্ঞপ্তিটির অর্থ হলো-যে অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য মৃত্যুদণ্ড পেয়েছে, তাকে আর মৃত্যুদণ্ডের মুখোমুখি হতে হবে না। মৃত্যুদণ্ডের পরিবর্তে তাকে অনধিক ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে।তিনি বলেন, এটি সৌদি আরবের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। এটি আমাদের আরও আধুনিক পেনাল কোড প্রতিষ্ঠা করতে সহায়তা করবে এবং আমাদের দেশের সমস্ত ক্ষেত্রের মূল সংস্কারে রাজ্যের প্রতিশ্রুতির বহিঃপ্রকাশ ঘটাবে। তবে এ সিদ্ধান্ত কবে কখন কার্যকর হবে, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

অ্যামনেস্টির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে সৌদি আরব ১৮৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে, যাদের মধ্যে অন্তত একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক থাকা অবস্থায় করা অপরাধের জন্য শাস্তি পেয়েছে।

সৌদি আরবের সুপ্রিম কোর্টের জেনারেল কমিশনের সিদ্ধান্তে শাস্তি হিসেবে বেত্রাঘাত বাতিল করার ঠিক দু’দিন পরে রোববার অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় করা অপরাধে মৃত্যুদণ্ড বাতিলের এ ঘোষণাটি এলো। সুপ্রিম কোর্টের জেনারেল কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এখন থেকে যেসব অপরাধে বেত্রাঘাত দেওয়া হতো, তার পরিবর্তে জেল বা জরিমানা দেওয়া হবে।

সুপ্রিম কোর্টের জেনারেল কমিশনের সিদ্ধান্তে এই রাজ্যের ঠিক দু’দিন পরে রবিবারের ঘোষণাটি কার্যকর হয়েছিল।শাস্তির পরিবর্তে জেলের সময় বা জরিমানা নেওয়া হবে।