বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

চট্টগ্রামে ডাক্তার, র‌্যাব-পুলিশসহ করোনায় আক্রান্ত ৯

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১০ জনের শরীরে নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে একজন ডাক্তার, একজন পুলিশ কনস্টেবল ও একজন র‌্যাব সদস্যসহ চট্টগ্রামের ৯ জন। বাকি একজন লক্ষ্মীপুর জেলার বাসিন্দা। এছাড়া চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার পুরনো দুই রোগীর শরীরে ফের পরীক্ষায় করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের ফৌজদারহাটে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজে (বিআইটিআইডি) মোট ১০০টি নমুনা পরীক্ষায় এই ফল পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির সারাবাংলাকে জানান, পরীক্ষায় চট্টগ্রাম জেলায় পুরনো দু’জনসহ ১১ জন এবং লক্ষ্মীপুরের একজনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি জানান, চট্টগ্রামে আক্রান্তদের মধ্যে মহানগরীর ৭ জন। এদের মধ্যে পতেঙ্গার একজন, আগ্রাবাদের একজন, হালিশহরের একজন, দামপাড়ার একজন, পাহাড়তলীর একজন, ভাটিয়ারি বিএমএ লিংক রোড এলাকার একজন এবং পাঁচলাইশের একজন বাসিন্দা আছেন। বাকি দু’জনের একজন মীরসরাইয় ও একজন বোয়ালখালীর বাসিন্দা।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের উপকমিশনার (বিশেষ শাখা) মো. আব্দুল ওয়ারিশ খান জানান, দামপাড়ায় শনাক্ত হওয়া ব্যক্তি পুলিশ কনস্টেবল। তিনি সিএমপির ট্রাফিক বিভাগের বন্দর জোনে কর্মরত আছেন। বয়স ৩৮ বছর। থাকেন চট্টগ্রাম নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনের ট্রাফিক ব্যারাকে।

ওই ব্যারাকের বাসিন্দা হিসেবে এ পর্যন্ত সাত জন পুলিশ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হলেন। এর আগে নগরীর লালখানবাজার এলাকার বাসিন্দা সিএমপির এক নায়েকও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ হিসেবে সিএমপিতে মোট আট পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হলেন।

এদিকে, করোনার সংক্রমণের বিস্তৃতি ঠেকাতে ট্রাফিক ব্যারাকে থাকা পুলিশ সদস্যদের সেখান থেকে সরিয়ে নিচ্ছে সিএমপি।

নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের উপকমিশনার (উত্তর) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ জানান, সোমবার ৩৩ জন ট্রাফিক সদস্যকে ব্যারাক থেকে চকবাজারে একটি আবাসিক হোটেলে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এর আগে ৩২ জনকে জিইসি মোড়ে একটি কমিউনিটি সেন্টারে নিয়ে রাখা হয়।

শহীদুল্লাহ বলেন, ট্রাফিক ব্যারাকে প্রায় ৩০০ সদস্য ছিলেন। ৭০ জনের মতো সরিয়েছি। এখনো ২০০ জনের বেশি ব্যারাকে আছেন। আমরা সামাজিক দূরত্বটা কঠোরভাবে মেইনটেইন করতে চাই।

র‌্যাব-৭-এর সহকারী পরিচালক মুশফিক হোসেন জানান, নগরীর পতেঙ্গায় শনাক্ত ব্যক্তি তাদের ব্যাটেলিয়নের সদস্য। তিনি পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক পদমর্যাদার কর্মকর্তা। বাড়ি কুমিল্লায়। বয়স ৩৫। নগরীর পতেঙ্গায় র‌্যাব-৭-এর দফতরের ব্যারাকে তিনি থাকেন। কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকায় একসপ্তাহ আগে তাকে কোয়ারেনটাইনে রাখা হয়।

সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি জানিয়েছেন, নগরীতে আক্রান্ত আরেক ব্যক্তি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক।

গত ২৬ মার্চ থেকে বিআইটিআইডিতে নমুনা পরীক্ষা শুরু হয়। চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত ২ হাজার ৬৪২ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এদের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ১০৪ জনের। মারা গেছেন ৫ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলার বাসিন্দা ৬২ জন। বাকিদের মধ্যে লক্ষ্মীপুরের ৩৩ জন, নোয়াখালীর চার জন, বান্দরবানের তিন জন এবং ফেনীর দু’জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন।

লাইটন নিউজ