বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুরে চাল চুরির ঘটনায় ডিলার বরখাস্ত

 

লাইট নিউজ প্রতিবেদক : সিরাগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরি ইউনিয়নের ১০ টাকা দরের চালের ডিলার আলাউদ্দিনকে সোমবার সকালে সাময়ীক বরখাস্ত করা হয়েছে।

এ ছাড়া তার গুদামে থাকা ১১৬ বস্তা চাল জব্দ করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির জিম্মায় রাখা হয়েছে। কৈজুরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামকে এ কমিটির প্রধান করা হয়েছে।

এ কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- উপজেলা ফুড ইন্সপেক্টর রওশন আলী, উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাহাতাব হোসেন ও কৈজুরি ইউনিয়নের সচিব মহব্বত হোসেন। এদিকে জব্দকৃত এ চাল ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের জিম্মায় রাখায় এলাকাবাসী চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা অবিলম্বে চেয়ারম্যানকে বাদ দিয়ে কমিটি গঠন করার জোর দাবী জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী জানান, কৈজুরী ইউনিয়নের করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতিতে গরিব ও অসহায়দের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ১০ টাকা কেজি দরের বরাদ্দকৃত ৩৫৭ কেজি চাল কারৈাবাজারে বেশি দরে বিক্রির জন্য ওই ইউনিয়নের ডিলার আলাউদ্দিন গোপালপুর গ্রামের আয়াত উল্লাহর বাড়িতে লুকিয়ে রাখে।

এলাকাবাসী বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশে খবর দিলে গত ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যায় শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুজ্জোহার নের্তৃত্বে পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে চোরাই এ চালসহ আলাইদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে। বর্তমানে ডিলার আলাউদ্দিন এ চাল চুরি ও আত্মসাত মামলায় জেলে আছেন।

এদিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ দিন সকালে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুজ্জোহার নেতৃত্বে পুলিশ কৈজুরি বাজারে অবস্থিত আলাউদ্দিনের গুদামে অভিযান চালিয়ে ১০টাকা কেজি দরের ১১৬ বস্তা চাল জব্দ করে। পরে জব্দকৃত চাল ওই কমিটির জিম্মায় রাখা হয়।

এ বিষয়ে কৈজুরি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হারুনার রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল আলম, কৈজুরি ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি নূর মোহাম্মদ, সাধারণ সম্পাদক সজিবুর রহমান সজিব,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ বেপারী, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শহীদ প্রমানিক, সিনিয়র সহ সভাপতি চান প্রামাণিক, ৬নং ওয়ার্ড আৗয়ামী লীগের সভাপতি পারভেজ সরকার, শাহজাদপুর উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক কমিটির সদস্য সানোয়ার হোসেন খান, কৈজুরি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক মমিন খান, ছাত্র নেতা ইমরান হোসেন বলেন, কৈজুরি ইউনিয়নের জন্য সরকারি বরাদ্দকৃত সকল ত্রাণ ও ১০টাকা কেজি দরের চাল চুরি, আত্মসাত, অনিয়ম-দুর্নীতি ও কালোবাজারে বিক্রির মূল হোতাই হল কৈজুরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম।

তার শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসী একাধিকবার বিক্ষোভ মিছিল পর্যন্ত করেছে। অথচ প্রশাসন সব জেনে শুনে ও তাকে রক্ষার সুকৌশল হিসাবে তার জিম্মায় এ চাল রাখা হয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে নিরপেক্ষ কমিটির কাছে এ চাল জিম্মির জোড় দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো: শামসুজ্জোহা বলেন, সোমবার জব্দকৃত ১১৬ বস্তা চাল কৈজুরি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামকে প্রধান করে গঠিত কমিটির জিম্মায় রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, নতুন ডিলার নিয়োগ হওয়ার পর তার মাধ্যমে এ চাল কার্ডধারী সুবিধা ভোগীদের কাছে ১০টাকা কেজি দরে বিক্রির ব্যবস্থা করা হবে।

এ বিষয়ে কৈজুরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন,পরবর্তী ব্যবস্থা না নেয়া পর্যন্ত জব্দকৃত চাল এ কমিটির জিম্মায় থাকবে। এরপর প্রশাসন যে সিদ্ধান্ত নিবে সে অনুযায়ী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

লাইট নিউজ/আহোশা