বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

ইকুয়েডরে মরদেহ পড়ে আছে বাথরুমে, মর্গে লাশের স্তূপ

 

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশ বাড়ছে। বিভিন্ন দেশে ভাইরাসটি এতটাই ভয়াবহ রূপ নিয়েছে যে, কোনোভাবেই পরিস্থিতি সামাল দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। হাসপাতালগুলোতে রোগী রাখার জায়গা নেই। মর্গগুলোতে লাশের স্তূপ জমে গেছে।

সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ইকুয়েডর। সেখানে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা এত বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে যে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না দেশটির সরকার। প্রতিদিনই বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে অসংখ্য বেওয়াড়িশ লাশ মিলছে।

সেখানকার চিকিৎসকরা বলছেন, ইকুয়েডরের চিকিৎসা ব্যবস্থা ইতোমধ্যে ভেঙে পড়েছে। হাসপাতালের মর্গে লাশের স্তূপ জমে যাচ্ছে। সেখানে লাশ রাখার জায়গা না পেয়ে বাথরুমের মেঝেতে রাখতে হচ্ছে। লাশ সরাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন।

দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ানোর অন্যতম কেন্দ্রস্থল গয়াকিল। সেখানকার নার্সরা বলছেন, সংক্রমণ এত বেশি বেড়েছে যে, অসংখ্য রোগীকে হাসপাতালে জায়গা দেয়া যায়নি। বিনা চিকিৎসায় অসংখ্য মানুষ মৃত্যুবরণ করছেন। এত বেশি মৃত্যু হচ্ছে যে, মর্গে লাশ রাখার জায়গা নেই। দৈনিক ১৫ থেকে ২০টি মরদেহ বাথরুমে রাখতে হচ্ছে।

ইকুয়েডরের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, সেখানে এখন পর্যন্ত মহামারি এই ভাইরাসটিতে ২৩ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর মৃত্যুবরণ করেছেন ৬০০ জন। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, সরকারি হিসাবে অনেক তথ্য গোপন করা হচ্ছে। তাদের দাবি, সেখানে এখন পর্যন্ত ছয় হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন।

লাইট নিউজ