বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

করোনা থেকে সুস্থ হলেন ১০ লাখ মানুষ

করোনা বর্তমান বিশ্বের এক আতঙ্কের নাম। এ মহামারি ভাইরাস সারা বিশ্বকে স্থবির করে দিয়েছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বিশ্বের ৩২ লাখ ১৯ হাজার ২৪২ জন। তাদের মধ্যে বর্তমানে ১৯ লাখ ৯০ হাজার ৯৩৫ জন চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছে অনেক মানুষ। এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের মধ্যে ১০ লাখ ১১৩ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার এর হিসেব অনুযায়ী, করোনাভাইরাসজনিত (কোভিড-১৯) রোগ থেকে চীনের মূল ভূখণ্ডে সেরে উঠেছে ৭৭ হাজার ৬১০ জন। যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪১১, স্পেনে ১ লাখ ৩২ হাজার ৯২৯, ইরানে ৭৩ হাজার ৭৯১ জন, ইতালিতে ৭১ হাজার ২৫২ এবং ফ্রান্সে ৪৮ হাজার ২২৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে। ইউরোপের দেশ জার্মানিতে ১ লাখ ২০ হাজার ৪০০ জন মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

এ ছাড়া তুরস্কে ৪৪ হাজার ৪০, ব্রাজিলে ৩৪ হাজার ১৩২, সুইজারল্যান্ডে ২২ হাজার ৬০০ জন, কানাডায় ২০ হাজার ৩৩২, অস্ট্রিয়ায় ১২ হাজার ৭৭৯, দক্ষিণ কোরিয়ায় ৭ হাজার ৯২২, বেলজিয়ামে ১১ হাজার ২৮৩ ও অস্ট্রেলিয়ায় ৫ হাজার ৬৮৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে।

এদিকে আক্রান্তের দিক থেকে ইতালি, স্পেন, চীনকে পেছনে ফেলে বর্তমানে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ১০ লাখ ৬৪ হাজার ১৯৪ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তবে এই ভাইরাসে দেশটিতে প্রাণ হারিয়েছেন ৬১ হাজার ৬৫৬ জন।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে একটি সামুদ্রিক বাজার থেকে করোনাভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। এরপর তা চীনের সীমান্ত পেরিয়ে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম হয়ে অস্ট্রেলিয়া, নেপাল, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইতালি, ফ্রান্স এবং যুক্তরাষ্ট্রে ছড়িয়ে পড়েছে। নতুন এই ভাইরাসে মূলত ফুসফুসে বড় ধরনের সংক্রমণ ঘটায়। জ্বর, কাশি, শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যাই মূলত প্রধান লক্ষণ। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

লাইটনিউজ/এসআই