বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

করোনাজয়ী প্রবাসীদের রাখা হবে জাহাজে

সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হওয়া কিছু বিদেশিকর্মীকে অস্থায়ীভাবে দুটি সুপারস্টার ক্রুজ জাহাজে রাখা হবে। ইতোমধ্যে ‘সুপারস্টার জেমিনি’ এবং ‘সুপারস্টার অ্যাকোয়ারিয়াস’কে দেশটির সরকার পরীক্ষা করে দেখেছে। জাহাজে শ্রমিকদের জন্য অস্থায়ীভাবে আবাসন ব্যবস্থার কথা জানানো হয়েছে।

শুক্রবার (১ মে) জেন্টিং ক্রুজ লাইন্স থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ডরমেটরিতে বসবাসরত অভিবাসী শ্রমিকদের মধ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে অধিকহারে বেড়েছে। বর্তমানে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ১৭ হাজার ১০১ জনের মধ্যে প্রায় ৮৫ শতাংশই অভিবাসী৷

অনেক অভিবাসীকর্মী যারা ভালো আছেন তাদের সুস্থতা নিশ্চিত করার জন্য ডরমেটরিগুলি থেকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। নিরাপদ স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে সামরিক শিবির, খালি এইচডিবি ফ্ল্যাট, অচার্ডে বিভিন্ন হোটেল।

এর আগে, সিঙ্গাপুর ট্যুরিজম বোর্ড (এসটিবি) বলেছিল, দুটি ক্রুজ জাহাজের আলাদা কক্ষ, আলাদা টয়লেট ও অন্যান্য সুবিধা রয়েছে। যার মাধ্যমে একজন থেকে আরেকজনের যোগাযোগ কমিয়ে আনা সম্ভব হবে৷

জাহাজের বায়ু চলাচল ব্যবস্থা, সিকিউরিটি প্রোটোকল এবং সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা পর্যালোচনা করা হয়েছে। দুটি জাহাজে একসাথে ২ হাজারের মতো অভিবাসী কর্মী থাকতে পারবে৷

জেন্টিং ক্রুজ লাইন্স জানিয়েছে, জাহাজে চলাচল করার সময় সিঙ্গাপুরের বিদেশিকর্মীদের স্বাস্থ্য ও কল্যাণ্যের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করা হবে৷ যার মধ্যে নিরাপদ দূরত্বের সর্বোচ্চ মান এবং সবসময় প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার পর্যবেক্ষণ করা হবে৷

উল্লেখ্য, সুপারস্টার জেমিনি হংকং থেকে ১৭ এপ্রিল মেরিনা বে ক্রুজ সেন্টার সিঙ্গাপুরে পৌঁছেছে এবং সুপারস্টার অ্যাকোয়ারিয়াস ২৫ এপ্রিল সিঙ্গাপুরে এসে পৌঁছেছে৷