বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

করোনার মধ্যেও ফলে বিষ মেশানো হচ্ছে!

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর বাদামতলীতে ফলের আড়তে অভিযান চালিয়েছে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে ৪১ লাখ টাকা জরিমানা, ৪০ টন কার্বাইডে পাকানো অপরিপক্ব আম ও ৪ টন মেয়াদোত্তীর্ণ খেজুর জব্দ করা হয়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চলমান কোভিড-১৯ সংকটে এসব ফল খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমার পাশাপাশি রয়েছে নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি।

করোনার বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যখন মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর কথা বলছে, এমন অবস্থায় এসব কেমিক্যাল মেশানো অপরিপক্ব আম ও মেয়াদোত্তীর্ণ খেজুরে বাড়ছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি।

প্রাকৃতিক নিয়মে এই আম আরও ১০ থেকে ১৫ দিন পরে পাকার কথা থাকলেও, এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী অতিরিক্ত মুনাফা লাভের আশায় অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রফিকুল ইসলাম ভুঁইয়া বলেন, করোনার সময় চিকিৎসকরা বলেছেন আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে হবে কিন্তু এই আম যদি আমরা খায় তাহলে আমরা আরও অসুস্থ হয়ে পরবো।

রোববার র‍্যাব ১২ টি আড়তে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও ৪টি আড়ত সিলগালা করে দেয়। র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম বলন, একদম অপরিপক্ব আম। ক্যালসিয়াম কার্বাইট দিয়ে পাকানো হয়েছে। আর খেজুরগুলো একদম পচে গেছে।

এইসব অপরিপক্ব আম ও মেয়াদোত্তীর্ণ খেজুর খাওয়া থেকে বিরত থাকতে আহবান জানিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও র‍্যাব।

লাইট নিউজ