বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার সাবেক রেসলার আলবার্তো ডেল রিওর

 

চলতি মাসের শুরুতে এক নারীতে মারধর এবং ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সাবেক রেসলার আলবার্তো ডেল রিওর বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, একইসঙ্গে সেই নারী ও তার ছেলেকে হুমকিধামকি দেয়ার অভিযোগও আনা হয়েছে ৪২ বছর বয়সী ডেল রিওর বিরুদ্ধে।

পরিচয় গোপন রাখা সে নারীর করা যৌন নির্যাতনের মামলায় শনিবার গ্রেফতার করা হয়েছিল ডেল রিওকে। যার আসল নাম হোসে রদ্রিগেজ চুকুয়ান। মামলায় বলা হয়েছে, গত ৩ মে সবশেষবার সেই নারীকে মারধর ও যৌন নির্যাতন করেছেন ডেল রিও। এর আগেও বেশ কয়েকবার এমন করেছেন তিনি। পাশাপাশি গুম করে দেয়ার হুমকিও দেয়া হয়েছিল।

ডেইলি মেইলের প্রতিবেদক মোতাবেক, নিজের অভিযোগের স্বপক্ষে ছবি, মেডিকেল রিপোর্ট এমনকি শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্নও দেখিয়েছেন সেই নারী। মূলত বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার কারণেই সেই নারীর ওপর ক্ষেপে গিয়েছিলেন ডেল রিও।

পুলিশকে দেয়া বয়ানে সেই নারী জানিয়েছেন, ডেল রিওর প্রতি তিনি সন্দেহ করায় ক্ষেপে যান সাবেক রেসলিং তারকা। ফলে তার স্যান অ্যান্টোনিওর বাসায় ডেকে বারবার মাথায় আঘাত করার পাশাপাশি একটি রুমে বন্দী করে ফেলেন।

তখন ডেল রিও সেই নারীকে একটি বিশেষ পরিধেয় কাপড় দিয়ে নাচতে জোর করেন। সেই নারী এতে দ্বিমত পোষণ করলে, ডেল রিও হুমকি দেন যে, তার (সেই নারীর) ছেলেকে মাঝ রাস্তায় কোথাও ফেলে দিয়ে আসবেন। যেখানে কেউ খুঁজেও পাবে না- মামলার এফিডেবিটে এসব কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

সেই নারী আরও জানান, বক্সিংয়ে ব্যবহৃত দড়ি দিয়ে তার দুই হাত বেঁধে দেয়া হয় এবং মুখের মধ্যে মোজা ঢুকিয়ে টানা কয়েক ঘণ্টা ধরে যৌন নির্যাতন করা হয়। এসময় তার পিঠে ক্রমাগত আঘাত করেছেন ডেল রিও। পুলিশের কাছে সেই আঘাতের চিহ্নও দেখিয়েছেন সেই নারী।

এই মামলায়ই শনিবার গ্রেফতার করা হয়েছিল ডেল রিওকে। পরে রোববার পুলিশি হেফাজতে থেকেই তার জামিনের জন্য ৫০ হাজার ডলার জরিমানা ধার্য করা হয়। বেক্সার কাউন্টি আদালত বলছে, রোববারই এই অর্থ পরিশোধ করে জামিনে বেরিয়ে গেছেন ডেল রিও।