বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

টুইটার কর্মীরা বাড়ি থেকে কাজ করতে পারবেন

 

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে বিশ্বজুড়ে সব কর্মীকে বাড়ি থেকে কাজ করার আদেশ দিয়েছিল মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার। তবে এবার সব সময় বাড়ি থেকে কাজ করতে পারবেন কর্মীরা এমন একটি ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জ্যাক ডরসি।

টুইটারের একজন মুখপাত্র ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানকে জানান, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের পর টুইটার প্রথম কোম্পানি যারা বাড়ি থেকে কাজ করার নির্দেশ দেয়। তবে টুইটার আর অফিসে কাজ করার সিদ্ধান্তে এখনই ফিরে যাচ্ছে না। এই মুহূর্তে টুইটারের যাকে প্রয়োজন তাকে ডেকে নিয়ে কাজ পরিচালনা করবে। এছাড়া কর্মীরা যতদিন চাইবেন ততদিন বাড়ি থেকে কাজ করতে পারবেন। এমন ঘোষণা তাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সিইও জ্যাক ডরসি বলেন, সেপ্টেম্বরের আগে টুইটার তার অফিস খুলবে না। এ বছর অফিস খুললেও মানুষ সম্পর্কিত কোন কাজ হবে না। ২০২১ সালে কি পরিকল্পনা হবে তা পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।

তিনি জানান, টুইটার বাড়ি থেকে কাজ করার উৎসাহ দিচ্ছে। এতে করে কাজের বিকেন্দ্রীকরণ হবে, এতে কর্মীরা যে কোন জায়গা থেকে দ্রুত কাজ করতে সক্ষম হবে।

টুইটার গত ২ মার্চ থেকে কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করার উৎসাহ দিচ্ছে। ১১ মার্চ থেকে বিশ্বজুড়ে এটি বাধ্যতামূলক করেছে টুইটার। এমনকি বাড়িতে অফিস বসানোর জন্য যে খরচ লাগবে সেগুলোও বহন করার ঘোষণা দেয় প্রতিষ্ঠানটি।

করোনাভাইরাস আক্রান্ত অঞ্চলগুলোর কর্মীদের জন্য একই ধরনের নির্দেশ দিয়েছে অ্যাপল, অ্যামাজন, মাইক্রোসফট এবং গুগলসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান। গুগল ও ফেসবুক কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করার সময় ২০২১ পর্যন্ত বাড়িয়েছে। অ্যামাজনও এ বছরের অক্টোবর পর্যন্ত বাড়িতে বসেই কর্মীদের কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছে।

সূত্র: গার্ডিয়ান