বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

সন্তান প্রসবের পর ১৬০ কিলোমিটার হাঁটলেন মা

 

ভারতে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে সাম্প্রতিক সময়ে লকডাউন জারি রয়েছে। তবে দেশটিতে প্রথমদিকে হঠাৎ করেই লকডাউন জারি করায় বিপাকে পড়েন হাজার হাজার শ্রমিক।

কাজ হারিয়ে বিপাকে পড়েছেন সেখানকার শ্রমিকরা। কাজ না থাকায় ভারতের এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে হেঁটেই বাড়ি ফিরছেন অনেক শ্রমিক। অনেকে শ্রমিকই বাড়ি ফিরতে গিয়ে পথেই মারা যাচ্ছেন বিভিন্ন দুর্ঘটনায়। এমন পরিস্থিতির মধ্যে পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরতে গিয়ে মাঝপথে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন ভারতের এক নারী। সন্তান প্রসবের কয়েক ঘণ্টা পর সদ্যজাত শিশুকে নিয়েই হাঁটা শুরু করে ১৬০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেছেন তিনি।

সম্প্রতি মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর এক প্রতিবেদনে ওই নারীর এই করুণ কাহিনী উঠে এসেছে। তবে ওই নারীর পরিচয় জানা যায়নি।

সিএনএন’র প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, স্বামী এবং চার সন্তান নিয়ে মহারাষ্ট্রের নাসিক এলাকা থেকে মধ্যপ্রদেশের সাতনা এলাকায় যাচ্ছিলেন ওই নারী। তবে লকডাউনের কারণে কোনো যানবাহন না পেয়ে পায়ে হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেন তারা। যেতে যেতে পথের মধ্যেই প্রসব বেদনা ওঠে ওই নারীর। পরে সেখানেই এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি।

জানা গেছে, সন্তান প্রসবের দেড় থেকে দু’ঘণ্টা পরেই আবারও হাঁটতে শুরু করেন তিনি। কারণ তাদের কাছে কোনো অর্থ ছিল না, কোনো যানবাহনও পাননি। এছাড়া তখন কেউই তাদের সাহায্য করতেও এগিয়ে আসেনি।সন্তান জন্মের দেড় থেকে দুই ঘণ্টা পরেই ওই নারী ১৬০ কিলোমিটার হাঁটেন। পরে মধ্যপ্রদেশের একটি চেকপয়েন্টে তাদেরকে থামানো হলে এই করুণ ঘটনা জানা যায়।

এ বিষয়ে মধ্যপ্রদেশের চেক পয়েন্টে কর্মরত নারী কর্মকর্তা কাভিতা কনেশ জানিয়েছেন, ওই নারীর জন্য তিনি চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। কাভিতা কনেশ বলেন, ওই শিশুটির জন্ম হয়েছে গত ৫ মে। তারা এই চেক পয়েন্টে আসারও চারদিন আগে ওই নারী সন্তানটি জন্ম দেন।

লাইট নিউজ