বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

নারী পুলিশ কনস্টেবলের আত্মহত্যা, স্বামী আটক

ঝালকাঠিতে সহকর্মীর পরকিয়ার জেরে স্বামীর সাথে অভিমান করে এক নারী কনস্টেবল বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে নাদিয়া আফরিন নামে ওই কনস্টেবলের মৃত্যু হয়। তিনি ঝালকাঠি পুলিশ লাইন্সে কর্মরত ছিলেন বলে জানা গেছে। তার স্বামী তরিকুল ইসলাম ও পরকিয়া প্রেমিক ফরহাদ একই স্থানে কনস্টেবল পদে কর্মরত রয়েছেন।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহ:স্পতিবার বিকেলে পুলিশ ব্যারাকে বসেই নাদিয়া বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। কিন্তু পুলিশ জানায় নাদিয়া ভাড়াটিয়া বাসায় বসে বিষপান করে।

বরিশাল শের-ই বাংলা হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়- নাদিয়া আফরিন নামের নারী কনস্টেবল বিষপানে অসুস্থ হয়ে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসেন। পরে তাকে ভর্তি করে মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আড়াই ঘণ্টার মাথায় রাত ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়। শেবাচিমে হাসপাতালে ডিউটিরত পুলিশ কর্মকর্তা মো. নাজমুল এই তথ্য নিশ্চিত করলেও নাদিয়া আফরিনের আত্মহত্যার কারণ বলতে পারছেন না।

ঝালকাঠির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) এমএম মাহামুদ হাসান জানান, স্বামীর সাথে নারী কনস্টেবলের গত দুদিন ধরে পারিবারিক কলহ চলছিল। সেই জেরেই নাদিয়া বৃহস্পতিবার বিকেলে সদর থানার অদুরে ভাড়াটিয়া বাসায় বিষপান করেন। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রতিবেশিদের কাছে খবর পেয়ে স্বামী ছুটে গিয়ে উদ্ধার করে প্রথমে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

লাইটনিউজ/এসআই