বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

মাস্ক জীবাণুমুক্ত করার তিন পদ্ধতি

 

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখতে সব সময় মাস্ক ব্যবহার করতে বলেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। বিশেষ করে বাইরে বের হওয়ার সময় মাস্ক ব্যবহার করা বেশি জরুরি বলে জানিয়েছেন তারা। একই সঙ্গে প্রতিবার মাস্ক ব্যবহারের আগে অবশ্যই এটিকে জীবাণুমুক্ত করে পরিধান করতে হবে।

এক্ষেত্রে বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর কোনো কিছুতে হাত দেয়ার আগে অবশ্যই ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। পাশাপাশি মাস্কও ধুয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। এক মাস্ক বেশিদিন ব্যবহার করা যাবে না। প্রয়োজনে নিজেই মাস্ক বাড়িতে বানিয়ে নিতে পারেন। সেগুলো নিয়মিত জীবাণুমুক্ত করে রাখতে হবে।

অনেকের মনেই প্রশ্ন, কীভাবে ধৌত করলে কিংবা কতক্ষণ ধৌত করলে মাস্ক জীবাণুমুক্ত হবে। সেটিরও পদ্ধতি জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)।

চলুন তাহলে জেনে নেই মাস্ক জীবাণুমুক্ত করার পদ্ধতি

=) পাত্রে গরম পানিতে ভিজিয়ে রেখে পরিষ্কার করা যায়। এক্ষেত্রে বড় একটি পাত্রে গরম পানিতে সাবান মিশিয়ে তাতে অন্তত পাঁচ মিনিট মাস্কগুলো ভিজিয়ে রাখতে হবে। পরে তা ভালোভাবে পরিষ্কার করে রোদে শুকাতে হবে।

=) ওয়াশিং মেশিনে পরিষ্কার করা যায়। এক্ষেত্রে প্রথমে মাস্কগুলোকে একটি কাপড়ের ব্যাগে ঢুকিয়ে নিন। কারণ ব্যাগের মধ্যে রেখে পরিষ্কার করলে মাস্কের ইলাস্টিক নষ্ট হবে না। সাধারণ লন্ড্রি ডিটারজেন্ট ব্যবহার করে গরম পানি দিয়ে তা পরিষ্কার করতে হবে।

=) ওভেনেও জীবাণুমুক্ত করা সম্ভব। এক্ষেত্রে ব্যবহার করা মাস্ক ফ্লেমেবল বা দাহ্য হওয়া যাবে না এবং সাধারণ কাপড়ের ফিতার হলে হবে না। অর্থাৎ মাস্ক যদি দাহ্য না হয় ও সাধারণ কাপড়ের ফিতা থাকে, তবেই শুধু ওভেনে জীবাণুমুক্ত করা যাবে। ১৫৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় আধা ঘণ্টা গরম করলে মাস্ক জীবাণুমুক্ত হবে।

=) বৈদ্যুতিক ইস্ত্রিতে মাঝারি তাপমাত্রায় আধা ঘণ্টা তাপ দিয়েও মাস্ক জীবাণুমুক্ত করা যায়।

লাইট নিউজ