বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

পাবনা-৪ আসনে উপ-নির্বাচন ২৬ সেপ্টেম্বর

আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণের দিন ধার্য রেখে পাবনা-৪ আসনের উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, এই নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়া যাবে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। তা বাছাই হবে ৩ সেপ্টেম্বর, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৮ সেপ্টেম্বর। এর ১৪ দিন পর হবে ভোটগ্রহণ।

রোববার (২৩ আগস্ট) বিকেলে নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর এই তফসিল ঘোষণা করেন। এর আগে বিকেল ৩টায় নির্বাচন কমিশনের ৬৮ তম বৈঠক শুরু হয়। বৈঠক শেষে তফসিল ঘোষণা করেন তিনি। সচিব বলেন, এই আসনে ব্যালটে নির্বাচন হবে।

ইসির সিনিয়র সচিব জানান, ঢাকা-৫ এবং নওগাঁ-৬ আসনে ভোট হবে ১৭ অক্টোবর। তবে করোনার কারণে ঢাকা-১৮ এবং সিরাজগঞ্জ-১ আসনের নির্বাচন আরও ৯০ দিন পিছিয়ে দিয়েছে কমিশন। বিকেলে নির্বাচন কমিশনের সভা শেষে এসব কথা জানান ইসি সচিব মোহাম্মদ আলমগীর।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে কোনো নির্বাচনে পথসভা, মিছিল, সভা, সমাবেশ এবং বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাওয়া যাবে না।

এদিকে চট্টগ্রাম সিটির প্রশাসকের মেয়াদ শেষ হলে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান কমিশন সচিব।

উল্লেখ্য, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু মারা যাওয়ায় পাবনা-৪ (আটঘরিয়া-ঈশ্বরদী) আসন শূন্য হয়। ২ এপ্রিল চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

সংবিধানের ১২৩ অনুচ্ছেদের ৪ দফা অনুযায়ী সংসদ ভেঙে যাওয়া ছাড়া অন্য কোনো কারণে সংসদের কোনো সদস্যপদ শূন্য হলে নব্বই দিনের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। তবে কোনো দৈব-দুর্বিপাকের কারণে ইসি আরও নব্বই দিনের মধ্যে এই উক্ত নির্বাচন করতে পারবে। আর করোনার কারণে দৈব-দুর্বিপাকের সুবিধা নিচ্ছে ইসি। কিন্তু ঢাকা-১৮ আসনের ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে।

লাইট নিউজ