বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

চোরকে ধরে পুলিশে দেওয়ায় ভুক্তভোগী পরিবারই অবরুদ্ধ!

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে শ্যালোমেশিন চোরকে ধরে থানায় সোপর্দ করায় কয়েকটি পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গোবিন্দগঞ্জ পৌর এলাকার খলসী গ্রামে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, খলসী গ্রামের মৃত কুদরত উল্যা শেখের ছেলে সাদেকুল ইসলাম (৪৬) গত ১৭ আগস্ট রাতে তার স্যালোমেশিন চুরি করে পিকআপভ্যানে তোলার খবর পেয়ে প্রতিবেশীদের নিয়ে ঘটনাস্থলে গেলে পাইপ ও কিছু যন্ত্রাংশ নিয়ে চোরেরা পিকআপভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় হাতেনাতে এক চোরকে আটক করে থানায় সোর্পদ করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মৃত ছাত্তারের ছেলে খোরশেদ আলম (৩৫), খবির উদ্দিন (৪৮), মৃত সাজা সরকারের ছেলে মিজু সরকার (৩০) সহ প্রতিপক্ষের লোকজন সন্ত্রাসী কায়দায় চলাচলের রাস্তায় বাঁশের বেড়া নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। নিরুপায় হয়ে ঘটনার শিকার পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়ের করা হলে বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসে।

আজ সোমবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামকৃষ্ণ বর্মন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রাস্তায় নির্মিত বাঁশের বেড়া অপসারণ করেন। এ ঘটনার পর সাদেকুল ইসলামের বাড়িতে একটি খড়ের গাদায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পরে গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মেহেদী হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লাইট নিউজ