বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

বর্ষার পর রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর

বর্ষা মৌসুমের পর নোয়াখালীর ভাসানচরে মিয়ানমারের রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের প্রথম দলটিকে স্থানান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন।

সোমবার (২৪ আগস্ট) ঢাকায় রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান বিষয়ক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকার কানাডিয়ান হাইকমিশন যৌথভাবে এ সেমিনারের আয়োজন করে।

মালেশিয়ার সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. সাঈদ হামিদ আলবার, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব মো. শহিদুল হক, ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার, কানাডিয়ান হাইকমিশনার বেনোইট প্রেফোনটাইন সেমিনারে বক্তব্য রাখেন।

এসময় পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, আমরা শিগগিরই ভাসানচর পরিদর্শন করবো। আমরা বর্ষা মৌসুমের পর মিয়ানমারের রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের প্রথম দলটিকে প্রাথমিক স্থানান্তর শুরু করার প্রত্যাশা করছি। এতে করে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরের ওপর চাপ কমাবে।

তিনি জানান, সম্প্রতি বঙ্গোপসাগর থেকে প্রায় ৩০৬ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়েছে। এবং তাদের ভাসানচরে স্থানান্তর করা হয়, তারা ভালো আছেন।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, ভাসানচরে জাতিসংঘের দলও পরিদর্শন করতে আসতে পারে এবং মানবাধিকার কর্মী ও গণমাধ্যমের লোকদের জন্য সরকার আরও পরিদর্শনের ব্যবস্থা করতে পারে।

তিনি জানান, সরকার সেখানে ১ লাখ রোহিঙ্গাদের থাকার জন্য অবকাঠামোগত উন্নয়নে প্রচুর বিনিয়োগ করেছে। রোহিঙ্গারা রাখাইনের পরিবেশ নিয়ে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছে না।

পররাষ্ট্রসচিব মোমেন মিয়ানমারে অনুকূল পরিবেশের অভাব এবং দুটি প্রত্যাবাসন প্রত্যাখ্যানের কথা তুলে ধরেন। তিনি বিশ্ব নেতৃত্বকে রাখাইনে পরিবর্তন আনতে এবং প্রত্যাবাসন ব্যবস্থাগুলো বাস্তবায়নে মিয়ানমারকে বোঝানোর আহ্বান জানান।

লাইট নিউজ