বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

র‌্যাবের অভিযানে দুই জঙ্গি সদস্য গ্রেফতার

সাধারণ মানুষের ধর্মীয় বিশ্বাসকে পুঁজি করে ধর্মের অপব্যাখ্যা প্রচার ও গোপনে জঙ্গি তৎপরতা চালানোর অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব-১৩)। সেই সাথে তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ উগ্রবাদী বই, লিফলেট, মোবাইল ফোন ও সীমকার্ড উদ্ধার হয়েছে।

গ্রেফতাররা হলেন, গাইবান্ধা জেলা সদরের ধোপাডাঙ্গা মুন্সিপাড়া এলাকার সাদা মিয়ার ছেলে আব্দুর রউফ (৩৭), একই জেলার গোবিন্দগঞ্জে বোয়ালিয়া গ্রামের মৃত সোলাইমান শেখ এর ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩০)। এরা সবাই নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর সক্রিয় সদস্য।

সোমবার (২৪ আগস্ট) বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১৩ রংপুর এর মিডিয়া অফিসার এএসপি খন্দকার গোলাম মোর্ত্তূজা।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ইতিপূর্বে গ্রেফতার হওয়া জঙ্গি সদস্যদের তথ্যের ভিত্তিতে রোববার (২৩ আগস্ট) রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার লালদিঘী বাজার রোডে অভিযান চালায় র‌্যাব। সেখান থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আল্লাহর দলের সদস্য ও পীরগঞ্জ সহথানা নায়ক আব্দুর রউফকে গ্রেফতার করা হয়। একই দিনে রাতে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে আরেক সক্রিয় সদস্য শরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

গ্রেফতার আব্দুর রউফ পেশায় চাকুরীজীবী। সে এইচএসসি পাশের পর এই সংগঠনের তৎপরতার সাথে জড়িয়ে যায়। অপরজন শরীফুল ইসলাম পেশায় সিএনজি চালক, এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য। তারা দুইজন জঙ্গি সংগঠন ‘আল্লাহর দল’ এর সক্রিয় সদস্য হিসেবে সাংগঠনিক কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য নিয়মিত গোপন বৈঠক, সদস্য গ্রহণ সংগ্রহ করে আসছেন বলে স্বীকার করেছেন। আল্লাহর দলের নেতা মতিন মেহেদী ওরফে মতিনুল ইসলাম ওরফে মাহাবুব মতিন ওরফে মতিনুল হক মন্ডলের মতাদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে অত্যন্ত চাটুকারিতার সাথে সক্রিয় সদস্য হিসেবে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানান।

গ্রেফতার এসব জঙ্গি সদস্যের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদের সহযোগীদের ব্যাপারে অনুসন্ধান চলমান রয়েছে বলেও প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

লাইট নিউজ