বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

চলে গেলেন ‘ইত্যাদি’র এটিএম জালাল উদ্দীন

বাংলাদেশের জনপ্রিয় বিনোদনমূলক ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদির নিয়মিত অভিনয় শিল্পী এটিএম জালাল উদ্দীন ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টায় শহরের কানাইখালীস্থ নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তিনি একাধারে বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার ও মঞ্চ নাটকের খ্যাতিমান অভিনেতা ও নাটোর শিল্পকলা একাডেমীর নাট্য প্রশিক্ষক ছিলেন। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে এটিএম জালাল উদ্দীন দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন। তিনি ১৯৫৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন।

অভিনেতা এটিএম জালাল উদ্দীনের মেয়ে জামাই আনিস রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। তিনি স্ত্রী, এক কন্যা, জামাতা, নাতনীসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি ২০১৭ সালে স্ট্রোক করার পর দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। অসুস্থ শরীরেই তিনি তার উপর ন্যস্ত দায়িত্ব পালন করেছেন। বেশ কিছুদিন ধরেই জালাল উদ্দিন শয্যাশায়ী ছিলেন।

এদিকে, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এটিএম জালাল উদ্দীনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দুস, নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য রত্না আহমেদ, জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ, পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, নাটোর পৌর মেয়র উমা চৌধুরি, ইঙ্গিত থিয়েটারের সভাপতি সুখময় রায় বিপলুসহ বিশিষ্টজনেরা।

লাইট নিউজ