বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ, গুলিতে নিহত ২

যুক্তরাষ্ট্রের কেনোসা শহরে পুলিশের গুলিতে এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক আহত হওয়ার ঘটনায় টানা তৃত্বীয় দিনের মতো বিক্ষোভ চলছে। এর মধ্যেই দুই বিক্ষোভকারীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এ ছাড়া একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। পুলিশ বলছে, তিন ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তবে কারা এর সঙ্গে জড়িত সে সম্পর্কে জানানো হয়নি।

এর আগে ২০২০ সালের ২৫ মে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের বৃহত্তম শহর মিনিয়াপলিসে পুলিশের হাতে জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবক নিহত হন। ওই সময় দেশ জুড়ে তুমুল বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। এ বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায়।

এর মধ্যেই রোববার সন্ধ্যায় উইসকনসিনের কেনোসা শহরে পুলিশের গুলিতে গুরুতর আহত হন জ্যাকব ব্লেক নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, দুই পুলিশ তাকে অনুসরণ করতে থাকে। ২৯ বছর বয়সী ওই কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ গাড়িতে ওঠার সময় পুলিশ তাকে পেছন থেকে গুলি করে। পর পর ৭ গুলির শব্দ শোনা যায়। পরে তাকে পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনা সামনে আসার পরে রাতেই হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে রাস্তায় নেমে আসেন। বিক্ষোভকারীরা আগ্রাসি হয়ে উঠলে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। জারি হয় কারফিউ। তবে কারফিউ উপেক্ষা করেই সোমবার ও মঙ্গলবার রাতে আবারও রাস্তায় নামেন বিক্ষোভকারীরা।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছিল, একটি গ্যাস স্টেশনে নিরাপত্তায় নিয়োজিত সশস্ত্র ব্যক্তিদের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

এক বিবৃতিতে কেনোসা পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে শহরে গুলির ঘটনায় কয়েকজন আহতের খবর পাওয়া গেছে। গুলিতে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে এবং গুলিবিদ্ধ একজনকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, নিহত ও আহতের পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি। এই মুহূর্তে বিস্তারিত কিছু জানানো যাচ্ছে না। তদন্ত চলমান রয়েছে।

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, রাইফেল হাতে থাকা এক ব্যক্তিকে তাড়া করছে কিছু মানুষ। এক পর্যায়ে ওই ব্যক্তি পড়ে যায় এবং জমায়েত হওয়া লোকদের লক্ষ্য করে একাধিক গুলি ছুড়ে।

লাইটনিউজ/এসআই