বাংলা ও বিশ্বের সকল খবর এখানে
শিরোনাম

শেয়ারবাজার: ২০ হাজার কোটি টাকা তহবিলের গেজেট শীঘ্রই

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানি ও মিউচুয়্যাল ফান্ডের বিতরণ না হওয়া লভ্যাংশ নিয়ে গঠন করা হচ্ছে ক্যাপিটাল মার্কেট স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ড। শেয়ারবাজারের উন্নয়নে এ তহবিলের আকার ২০ হাজার কোটির টাকা কমবেশি হতে পারে। এ তহবিল গঠনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। শীঘ্রই ক্যাপিটাল মার্কেট স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ড রুলস, ২০২১ এর গেজেটে প্রকাশ করা হবে।

বিএসইসির ৭৭২তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিএসইসি ক্যাপিটাল মার্কেট স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ড রুলস, ২০২১ এর খসড়া জনমত যাচাই পরবর্তী অনুমোদন করেছে। অতি শীঘ্রই তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে।

এ তহবিলের নাম হবে ‘শেয়ারবাজার স্থিতিশীল তহবিল’। শুরুতে এ তহবিলে যুক্ত হবে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানি ও মিউচুয়্যাল ফান্ডের বিতরণ না হওয়া লভ্যাংশ। আইন করে এসব লভ্যাংশ প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে তহবিলে নিয়ে আসা হবে। বর্তমানে পুঁজিবাজারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের হাতে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকার সমমূল্যের বিতরণ না হওয়া লভ্যাংশ রয়েছে। যার মধ্যে নগদ লভ্যাংশের পরিমাণ প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকার। আর বোনাস লভ্যাংশের বাজার মূল্য প্রায় ১৭ হাজার কোটি টাকা।

বিএসইসি’র সূত্র জানা গেছে, শেয়ারবাজারকে সাপোর্ট দিতে এ ফান্ড গঠন করা হচ্ছে। ফান্ড পরিচালনায় ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করা হবে। এর মধ্যে বিএসইসি থেকে চার জন, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল) ও সেন্ট্রাল কাউন্টারপার্টি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিসিবিএল) থেকে একজন করে প্রতিনিধি কমিটিতে রাখা হতে পারে।