বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১০:২৫ পূর্বাহ্ন

কলম্বিয়ায় তৈরি বিশেষ এই বেডকে কফিনেও রূপান্তর করা যাবে

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ মে, ২০২০

 

করোনাভাইরাসের কারণে হাসপাতালগুলোতে বেড ও লাশ বহনে কফিনের ব্যাপক সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এ অবস্থায় কলম্বিয়ার একটি বিজ্ঞাপন কোম্পানি বিশেষ ধরনের একটি বেড তৈরি করেছে, যা রোগীর বেড এবং কোনো কারণে তার মৃত্যু হলে কফিন হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে।

কোম্পানির ম্যানেজার রোডোলফো গোমেজ বলেন, ইকুয়েডরের অবস্থা দেখে আমি বেশ মর্মাহত হয়েছি। সেই ঘটনা থেকে পরিবারগুলোকে রক্ষা করতেই বিশেষ ডিজাইনের এই বেড তৈরি করতে উদ্বুদ্ধ হই আমরা।

আল আরাবিয়ার বরাতে জানা যায়, ইকুয়েডরের উপকূলীয় শহর গুয়ায়াকুইলের পরিবারগুলো করোনায় মৃত স্বজনদের মরদেহ নিয়ে বেশ ভোগান্তিতে পড়েছে। অনেকেই অর্থের অভাবে লাশের জন্য একটি কফিন জোগাড় করতে পারেনি। কার্ডবোর্ডের একটি কফিনের জন্য মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হচ্ছে তাদের।

গোমেজ বলেন, পরিবারগুলো এত অসহায় অবস্থায় আছে যে, একটি কফিনও তারা জোগাড় করতে পারছে না।তাদের তৈরিকৃত বেডগুলো এখনো কেউ কেনার কথা বলেছি কি না সে বিষয়ে জানা যায়নি। তবে কোম্পানি থেকে কলম্বিয়ার অ্যামাজন অফিসকে ১০টি বেড অনুদান দেয়া হয়েছে। যাতে করে অসহায় কিছু পরিবার সহায়তা পায়।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশটিতে চলছে লকডাউন। এর কারণে বিজ্ঞাপন তৈরি করতে পারছে না কোম্পানিটি। এই কারণেই সৃজনশীলতা ব্যবহার করে কার্যকর একটি বেড প্রস্তুত করতে সক্ষম হয়েছেন তারা।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কলম্বিয়ায় এখন পর্যন্ত ভয়ংকর এই ভাইরাসে ১৪ হাজার ২১৬ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ৫৪৬ জন।

জানা যায়, বিশেষ এই বেডটি ১৫০ কেজি ওজনের একজন মানুষের ভার বহনে সক্ষম। এর দাম ঠিক করা হয়েছে ৮৫ ডলার (বাংলাদেশি টাকায় সাত হাজার ২০০ টাকা)।

গোমেজ বলেন, বেসরকারি একটি ক্লিনিকের সাহায্য নিয়ে আমরা এর ডিজাইন প্রস্তুত করেছি। এটি হাসপাতালগুলোতে বেডের সঙ্কট মেটাতে বেশ কাজে দিবে। সেইসঙ্গে কফিনেরও। কেউ মারা গেলে তাকে আলাদা করে কোনো স্থানে হস্তান্তর করতে হবে না। ওই বেডটি কফিনে রূপান্তর করে মৃতদেহ রাখা যাবে। এতে করে ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া শঙ্কা অনেকাংশেই হ্রাস পাবে।

লাইট নিউজ

 

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD