সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্ত ২৩ হাজার শ্রমিক

লাইটনিউজ রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ মে, ২০২০

সিঙ্গাপুরে হাজার হাজার অভিবাসী শ্রমিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত এপ্রিল মাসের শুরুতে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছিল হাজারখানেক।

এক মাসের একটু বেশি সময়ে সে সংখ্যা বেড়ে এখন ২৬ হাজার ৮৯১ জন। তাদের মধ্যে ২৩ হাজারের বেশিই অভিবাসী শ্রমিক। অর্থাৎ দেশটিতে মোট আক্রান্তের ৮৮ শতাংশই শ্রমিক।

যদিও দেশটিতে মারা গেছেন মাত্র ২১ জন। শুক্রবার সিএনএন জানায়, দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বাংলাদেশ এবং ভারতের মতো দেশের এসব নাগরিক ভিড়ে ঠাসা ডরমেটরি থেকে সংক্রমিত হয়েছেন।

সিঙ্গাপুরের কর্মীবাহিনীর একটি উল্লেখযোগ্য অংশ অর্থাৎ প্রায় ১৪ লাখ অভিবাসী শ্রমিক শহরে বাস করেন। তাদের বেশিরভাগই নির্মাণ খাত, সাধারণ শ্রমিক এবং গৃহকর্মী হিসেবে কাজে নিযুক্ত।

প্রায় তিন লাখ শ্রমিক দেশটির ৪৩টি ডরমেটরিতে বাস করেন বলে জানিয়েছেন জনশক্তিমন্ত্রী জোসেফাইন তেও। ডরমেটরিগুলোতে অধিকহারে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি হওয়ার পেছনে বিশেষজ্ঞরা কয়েকটি কারণ দায়ী করেছেন।

এর মধ্যে অন্যতম হল অল্প জায়গায় বেশি লোকের বসবাস। ডরমেটরির প্রতিটি কক্ষে প্রায় ১০ থেকে ২০ জন বাসিন্দা থাকেন। তারা টয়লেট এবং গোসলখানা শেয়ার করেন।

তারা সাধারণ জায়গায় খাওয়া-দাওয়া সারেন এবং একে অপর থেকে ফুটখানেক দূরত্ব বজায় রেখে ঘুমান। সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা প্রায় অসম্ভব।

তাই রুমের একজন করোনায় আক্রান্ত হলে অন্যদের মাঝে খুব দ্রুত ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে। তাছাড়া বর্তমানে রুমে অবস্থান করতে হলেও অনেকেই সামাজিক দূরত্ব মানছে না।

তারা দলবদ্ধভাবে আড্ডা দিচ্ছে, তাস খেলছে যা ইতোমধ্যে আমরা ফেসবুক ভিডিওতে দেখেছি। এপ্রিল মাসে সিঙ্গাপুরে দৈনিক এক হাজার করে নতুন আক্রান্ত হতে শুরু করে।

কর্তৃপক্ষ সংক্রমণ রুখতে ডরমেটরিগুলো লকডাউন এবং সংক্রামিত বাসিন্দাদের স্থানান্তরিত করে। সিঙ্গাপুরে এখনও কমপক্ষে ২৩ হাজার ৭৫৮ জন ডরমেটরির বাসিন্দা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

দেশটির বাকি অংশ যেখানে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছে, সেখানে অভিবাসী শ্রমিকরা ১ জুন পর্যন্ত লকডাউনে থাকবেন। প্রায় ৭১৯.৯ বর্গকিলোমিটার আয়তনের দ্বীপরাষ্ট্র সিঙ্গাপুরের মোট জনসংখ্যা প্রায় ৫৭ লাখ।

এর মধ্যে ৪৭ লাখ সিঙ্গাপুরিয়ান, স্থায়ী বাসিন্দা ও অন্যান্য পাশ হোল্ডার। ৩ লাখ ২৩ হাজার ওয়ার্ক পাশ হোল্ডার শ্রমিক ডরমেটরিতে থাকেন এবং ৬ লাখ ৬৪ হাজার ওয়ার্ক পাশ হোল্ডার, যারা ডরমেটরির বাইরে থাকেন।

২৩ জানুয়ারি সিঙ্গাপুরে করোনা আক্রান্ত প্রথম রোগী ধরা পড়ে। তারা সবাই চীন থেকে সিঙ্গাপুরে ফিরেছিলেন। ৯ ফেব্রুয়ারি প্রথম কোনো বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

ডরমেটরিতে বসবাসকারী ৩ লাখ ২৩ হাজার অভিবাসী কর্মীদের মধ্যে ২৩ হাজার ৭৫৮ জনই করোনা পজিটিভ। অর্থাৎ ৫.৩ শতাংশই করোনায় আক্রান্ত। ৬ লাখ ৬৪ হাজার ওয়ার্ক পাশ হোল্ডার, যারা ডরমেটরির বাইরে থাকেন তাদের মধ্যে ৫৭৭ জন করোনাভাইরাসে পজিটিভ।

লাইটনিউজ/এসআই

Please Share This Post in Your Social Media

আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 Lightnewsbd

Developer Design Host BD